কোনো ভূমিহীন ব্যক্তি আশ্রয়হীন থাকবে না: ডিসি

আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য গৃহনির্মাণকার্যক্রমের উপকার ভোগীদের মাঝে মুজিববর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী বিতরন করলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোস্তাইন বিল্লাহ্।

শনিবার (৮ মে) বিকেলে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়া খালপার এলাকায় ১শ’ ৩০ জন উপকার ভোগী মানুষের মাঝে এ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। পরে মুজিববর্ষ ভিলেজ পরিদর্শন করেন তিনি।

এ সময় জেলা প্রসাশক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, রূপগঞ্জ কাঞ্চন মুজিববর্ষ ভিলেজে ভূমিহীনদের স্থান্তর করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এখানে ১৩১টি ঘর তৈরি করা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারা দেশের মত এটি উদ্বোধন করবে। কিছু দরিদ্র সংখ্যক লোককে আমরা এখানে ঘর হস্থান্তর করেছি। প্রত্যেকে উপকার ভোগীকে ২শতাংশ জমি দিচ্ছি। এটি রেজিস্ট্রেশন হবে মিটিশন হবে। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে কোনো ভূমিহীন ব্যক্তি আশ্রয়হীন থাকবে না। আমরা সেই লক্ষ্যেই আমাদের জেলা প্রশাসন কাজ করছে।  আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে মুজিববর্ষ  উপলক্ষে ভূমিহীদের মাঝে আরও কিছু ঘর উপহার দিতে পারব।

সেই সাথে উপকার ভোগীদের পরামর্শ দেন তারা যাতে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর গুলো কাউকে না দেন অথবা প্রলোভনে পড়ে  ঘর, জমি বিক্রি করে না দেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রেভিনিও) সেলিম রেজা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শামীম বেপারী, নারায়ণগঞ্জ লেডিস ক্লাবের সভাপতি নাসরীন সুলতানা, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়া, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ্ নুসরাত জাহান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলাম ও কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম রফিক প্রমুখ।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

গ্রামের বাড়ীতে যাবার হিড়িক সৃষ্টি করবেন না: আনোয়ার

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, মহান রাব্বু আল আমিনের দয়ায় সচেনতা মাধ্যমেই আমরা করোনা আজাব থেকে মুক্ত পেতে পারি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জনগণকে সচেতনতায় আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যে তিনি বিভিন্ন কাযক্রম হাতে নিয়েছে, তার জন্য ভারত ও বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে বাংলাদেশ হ্রাস পেরেছে। আমরা চাই, প্রধানমন্ত্রীর সঠিক নির্দেশনা মেনে চলে করোনা মহামারী থেকে আমরা সবাই রক্ষা পাই। আমরা নিজেরাও রক্ষায় পাই, জনগণকে রক্ষা করি। আপনারা সরকারের নিদেশনা মেনে চলুন। মাস্ক পরিধান করুণ, ২০ মিনিট পর হাত পরিস্কার করুণ। এর পাশাপাশি ঈদকে সামনে রেখে মার্কেট ফুটপাত ও গ্রামের বাড়ীতে যাবার হিড়িক সৃষ্টি না করে যেখানে আসেন, সেখানেই ঈদ পালনের ব্যবস্থা নিন।

রবিবার (৯ মে) ১শ’ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে পত্মী সুলতানা রাজিয়াকে নিয়ে করোনা’র দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মহান রাব্বুল আল আমিনের কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাযক্রমে বাংলাদেশের জনগণ মোকাবেলায় করোনা দ্বিতীয় ডোজ দিয়ে যাচ্ছে। আমরা দীঘদিন অসুস্থ থাকা পর আজ দুইজনের দ্বিতীয় করোনা ডোজ দিতে পেরেছি। একটা জিনিস সত্য, একটা দেশের সরকার উপর নিভর করে আসলে দেশের মানুষদের কতটুকু সচেতনতা সৃষ্টি করা যায়। কোভিড-১৯ সংক্রমণ বৃদ্ধি ও রোধে কতটুকু সচেনতনায় সৃষ্টি হয়েছে, তা সরকার পালন করতে সক্ষম হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু আগে ২৪ ফেব্রুয়ারি ১শ’ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল থেকে করোনা প্রথম ডোজ নেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন এবং তার পত্মী সুলতানা রাজিয়া। ডোজ নেয়ার এক মাস পর ২৪ মার্চ করোনা আক্রান্ত হন আনোয়ার দম্পত্তি। পরে নিজের বাড়ীতে আইসোলেশনে থেকে ১৩ এপ্রিল তাদের দম্পতির করোনা নেগেটিভ আসে। সরকারের টিকা প্রদানের নিদের্শনা অনুযায়ী কোভিড-১৯ সংক্রমিত ব্যক্তি করোনা টেষ্টের নেগেটিভ হওয়ার ২৮দিন (৪ সপ্তাহ) পর টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। সে অনুযায়ী আজ তারা করোনার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেন।

সুত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

না.গঞ্জে মামুনুল হকের রিমান্ড শুনানী আবারও পিছালো

কওমি মাদ্রাসা ভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বিরুদ্ধে পৃথক তিন মামলার রিমান্ড আবেদনের শুনানি আবারও পিছানো হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ হুমায়ুন কবিরের আদালতে সোমবার (৯ মে) দুপুরে শুনানির পরবর্তী দিন ১২ মে ধার্য করেন।

ত ২ মে এক নারীর করা নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ধর্ষণের মামলায় হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে।

এ ছাড়া সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে হামলা ও ভাঙচুরের মামলা এবং সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিন করে মোট ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়েছে।পরে আদালত আজ ৯ মে রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করেন।পরে আদালত আজ ৯ মে রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করেন।

গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টের একটি কক্ষে এক নারীসহ হেফাজতে ইসলামের সাবেক কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে নারীসহ অবরুদ্ধ করেন স্থানীয় লোকজন। পরে পুলিশ গিয়ে মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। এ সময় খবর পেয়ে হেফাজতের নেতা–কর্মী ও মাদ্রাসার ছাত্ররা ওই রিসোর্টে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়ে তাঁকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেন। পরে হেফাজতের নেতা–কর্মীরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানবাহন ভাঙচুর করেন। এ সময় তাঁরা মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অগ্নিসংযোগ করেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়েও ভাঙচুর করা হয়।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

না.গঞ্জে ফ্রেশ কোম্পানীর মালিকের শ্যালক পরিচয়ে প্রতারণা

কখনো ‘সৌদির একটি সংস্থার লোক’, কখনো ‘রিয়েল এষ্টেট কোম্পানীর মালিক’, আবার কখনো ‘ফ্রেশ কোম্পানীর মালিকের শ্যালক’; এমন নানা পরিচয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে প্রতারণা করে আসছিলেন একটি সংঘবদ্ধ চক্র। র‌্যাবের ধারণা, ‘গত ১৫ বছরে চক্রটি শতাধিক ব্যবসায়ীকে নিঃস্ব ও সর্বস্বান্ত করেছেন’।

রোববার (৯ মে) বিকালে র‌্যাব-১১ এর কার্যালয় থেকে প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তারের তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-মো. এসহাক আলী (৭০), মো. মামুন (৪৯), খন্দকার মো. রাজু আহমেদ ওরুফে মাসুদ (৫৬) ও মো. ফারুক কবির (৩৫)।

বিজ্ঞপ্তিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী জানান, নারায়ণগঞ্জসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ব্যবসায়ী শ্রেণীর লোকজনদের টার্গেট করে বিভিন্ন লাভজনক ব্যবসার প্রলোভন দেখিয়ে কখনও ঠিকাদারী কাজ পাইয়ে দেওয়া, কখনো ডিলারশীপ পাইয়ে দেওয়া, কখনোবা এজেন্ট নিয়োগের কথা বলে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় তাদের ভাড়াকৃত সুসজ্জিত অফিসে ডেকে নিয়ে আসে এবং জামানত/বিনিয়োগ বাবদ প্রতারণামূলকভাবে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করে আসছে। প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন কৌশলে এই সংঘবদ্ধ প্রতারকচক্রের সদস্যরা তাদের পাতানো প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সহজ সরল ব্যবসায়ীদের নিঃস্ব ও সর্বস্বান্ত করে আসছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ৮ মে অভিযানে ফতুল্লার বিভিন্ন স্থান থেকে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের ৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে কাবু বিশ্ববাসী: মৃত্যু ৩৩ লাখ ছুঁই ছুঁই

মহামারি করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে কাবু বিশ্ববাসী। দিন দিন আরও ভয়ংকর হয়ে উঠছে এ ভাইরাস। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর সারি, আক্রান্তও হচ্ছে লাখে লাখে। মহামারি এ ভাইরাসের নতুন নতুন ধরন মানুষের মনে আতঙ্ক বাড়িয়ে দিয়েছে। করোনার টিকা আবিষ্কার হলেও এখনো কাটেনি আতঙ্ক। এরই মধ্যে বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩২ লাখ ৯৬ হাজার এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ কোটি ৮৩ লাখেরও বেশি মানুষ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রোববার (৯ মে) সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ১৩ হাজার ২২ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৮৩ হাজার ১৩ জনের শরীরে। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩২ লাখ ৯৬ হাজার ৫৯১ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ কোটি ৮৩ লাখ ১২ হাজার ৮৫৩ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৩ কোটি ৫৭ লাখ ৬১ হাজার ৪৩ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৫৪ হাজার ৫৮১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৫৮৮ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বের সর্বোচ্চ ৪ লাখ ৯ হাজার ৩০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ২২ লাখ ৯৫ হাজার ৯১১ জন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে রেকর্ডসংখ্যক ৪ হাজার ১৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৯৮ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিল এখন পর্যন্ত করোনায় এক কোটি ৫১ লাখ ৫০ হাজার ৬২৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ২১ হাজার ৪৮৪ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭ লাখ ৬৭ হাজার ৯৫৯ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছেন এক লাখ ৬ হাজার ২৭৭ জন।

এই তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে তুরস্ক। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৫০ লাখ ১৬ হাজার ১৪১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৪২ হাজার ৭৪৬ জন।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় রাশিয়া ষষ্ঠ, যুক্তরাজ্য সপ্তম, ইতালি অষ্টম, স্পেন নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

সূত্রঃ সময় নিউজ

করোনায় দেশে দৈনিক মৃত্যু ও শনাক্ত ফের বেড়েছে

বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালানো মহামারি করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ৫৬ জন। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৯৩৪ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন আরও ১ হাজার ৩৮৬ জনের দেহে। এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৭৩ হাজার ৫১৩ জনে।

করোনাভাইরাস নিয়ে রোববার (৯ মে) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৩২৯ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ১০ হাজার ১৬২ জন। 

এর আগে শনিবার (৮ মে) দেশে করোনায় ৪৫ জন মারা যান, আর নতুন করে শনাক্ত হয় ১ হাজার ২৮৫ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রোববার (৯ মে) সকাল ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন আরও ১৩ হাজার ২২ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৮৩ হাজার ১৩ জনের শরীরে। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩২ লাখ ৯৬ হাজার ৫৯১ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ কোটি ৮৩ লাখ ১২ হাজার ৮৫৩ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৩ কোটি ৫৭ লাখ ৬১ হাজার ৪৩ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৫৪ হাজার ৫৮১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৯৫ হাজার ৫৮৮ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বের সর্বোচ্চ ৪ লাখ ৯ হাজার ৩০০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট সংক্রমিত হয়েছেন ২ কোটি ২২ লাখ ৯৫ হাজার ৯১১ জন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে রেকর্ডসংখ্যক ৪ হাজার ১৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৯৮ জনের।

আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিল এখন পর্যন্ত করোনায় এক কোটি ৫১ লাখ ৫০ হাজার ৬২৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ২১ হাজার ৪৮৪ জনের।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭ লাখ ৬৭ হাজার ৯৫৯ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছেন এক লাখ ৬ হাজার ২৭৭ জন।

এই তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে তুরস্ক। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৫০ লাখ ১৬ হাজার ১৪১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৪২ হাজার ৭৪৬ জন।

এদিকে আক্রান্তের তালিকায় রাশিয়া ষষ্ঠ, যুক্তরাজ্য সপ্তম, ইতালি অষ্টম, স্পেন নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।

সুত্রঃ সময় নিউজ

এক মাসের ব্যবধানে করোনায় স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু, দাফনে টিম খোরশেদ

প্রায় এক মাসের ব্যবধানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন চাষাড়ার এক দম্পতি। প রিবারের আহবানে সাড়া দিয়ে উভ য়ের দাফনেই ছিল টিম খোরশেদের সদস্যরা।

আজ শনিবার(৮ মে) নগরীর উত্তর চাষাড়া নিবাসী হাজী হারুন মিয়া (৭২) করোনা আক্রান্ত হয়ে নারায়ণগঞ্জ কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।

মরহুমের পরিবারের আহবানে টিম খোরশেদ এর স্বেচ্ছাসেবকরা মরহুমের গোসল,জানাজা শেষে পাইকপারা কবরাস্তানে দাফন সম্পন্ন করেন। এটি ছিল টিম খোরশেদের ২০২ তম দাফন।

উল্লেখ্য মরহুম হারুন মিয়া ২য় বারের মত করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান।১ মাস আগে গত ৩ রা এপ্রিল মরহুমের স্ত্রী মিনা বেগমও করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেন।টিম খোরশেদ তারও দাফন সম্পূর্ণ করেছিলো।

আকজের দাফন টিমে ছিলেন হাফেজ রিয়াদ,আনোয়ার হোসেন,মোঃশহীদ,সুমন দেওয়ান,রফিক ও নীরব।

এসএ পরিবহনে আচারের প্যাকেটে ৬ হাজার ইয়াবা নিতে এসে নারী আটক

নারায়ণগঞ্জ শহরের ডনচেম্বারে কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠান এস এ পরিবহন থেকে প্রায় ছয় হাজার পিছ ইয়াবাসহ অরুণা আক্তার (২৮) নামে এক নারীকে আটক করেছে র‌্যাব-১১।

কক্সবাজার থেকে অভিনব পদ্ধতিতে আসা ইয়াবার চালানটি শনিবার দুপুরে এস এ পরিবহনের পার্শ্বেল শাখা থেকে বুঝে নেয়ার সময় তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়েছে । আটককৃত অরুণা আক্তারের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানা এলাকায়। র‌্যাব জানিয়েছে, এই নারী দীর্ঘদিন যাবত ইয়াবা পাচারের কাজে সরাসরি জড়িত আছেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন।

র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়ানের উপ-অধিনায়ক মেজর হাসান শাহরিয়ার জানান, কক্সবাজার থেকে ইয়াবার একটি চালান এস এ পরিবহনের কুরিয়ার সার্ভিস থেকে নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের গোয়েন্দা দল নজরদারি শুরু করে। বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে র‌্যাবের গোয়েন্দা দলটি নারায়ণগঞ্জে এস এ পরিবহনের কুরিয়ার সার্ভিস কার্য্যালয়ে অবস্থান নেয়।

দুপুর আড়াইটায় অরুণা আক্তার নামে ওই নারী তার শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে বোরকা পড়া অবস্থায় এসে পার্শেল শাখার গুদাম থেকে কৌশলে আচারের প্যাকেটের আড়ালে ইয়াবার চালানটি বুঝে নেন। এসময় র‌্যাব তাকে হাতেনাতে আটক করলে আচারের প্যাকেটের ভেতরে ছয় হাজার পিছ ইয়াবা আছে বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেন।

সূত্রঃ নিউজ নারায়াণগঞ্জ

ঘরমুখো মানুষ ও শপিংমলে উদাসীনতা নিয়ে উদ্বিগ্ন ওবায়দুল কাদের

গত কয়েক দিনে ফেরিঘাটে ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড় এবং শপিংমলে স্বাস্থ্যবিধি মানতে উদাসীনতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, মানুষের এমন আচরণে করোনা সংক্রমণ হারের নিম্নমুখী প্রবণতা আবারও বাড়িয়ে দিতে পারে।

শনিবার (৮ মে) সকালে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে করোনায় মানুষকে সচেতন হওয়ার প্রতি জোর দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন- আগে জীবন, পরে জীবিকা। এই মুহূর্তে বেঁচে থাকাটাই জরুরি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বেঁচে থাকলে ভবিষ্যতে অনেক আনন্দ-উৎসব করা যাবে, কাজেই আসুন এবার সবাই মিলে ত্যাগ স্বীকার করি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আহ্বানে যার যার অবস্থানে থেকে ঈদ উদযাপন করতে সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আসুন সবাই মিলে প্রাণঘাতী এই করোনাকে প্রতিরোধ করি।

‘অনুমতির পর সিদ্ধান্ত কোথায় যাবেন যাবেন খালেদা জিয়া’

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাওয়ার আবেদনের বিষয়ে শনিবারের (০৮ মে) মধ্যে মতামত জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। এদিকে সরকারের অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছে খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা।

সরকারের অনুমতি পেলে চিকিৎসার জন্য কোথায় যাবেন বা কিভাবে যাবেন সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার একান্ত সচিব এ বি এম আব্দুস সাত্তার।

শনিবার সময় সংবাদকে তিনি বলেন, আমরা সরকারের অনুমতির অপেক্ষায় আছি। খালেদা জিয়াকে দেশের বাইরে নেওয়ার সব প্রস্তুতিও সম্পন্ন করা আছে। সরকারের অনুমতি পেলে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তিনি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স নাকি চার্টার্ড ফ্লাইটে বিদেশ যাবেন।

এ বি এম আব্দুস সাত্তার আরও বলেন, চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে কোথায় নেওয়া হবে সে লক্ষ্য এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। তবে আপাতত তাকে লন্ডন নিতে চান তার পরিবার।

এর আগে খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে গত বুধবার (০৬ মে) রাত আটটায় সরকারের কাছে আবেদন করে তার পরিবার। এখনো সরকারের গ্রিন সিগন্যাল মেলেনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় আবেদনের কপি হাতে পাওয়ার পর আইনমন্ত্রী জানিয়েছেন, খুব শিগগিরই এ বিষয়ে তিনি মতামত দিবেন। 

বিএনপিও তাকিয়ে সরকারের দিকে। আবেদনে লন্ডনে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ না করলেও সে দেশকেই অগ্রাধিকার দিচ্ছে তার পরিবার। এছাড়া সিঙ্গাপুর হয়ে সৌদি আরব যাওয়ার কথাও শোনা যাচ্ছে। দেশগুলোর দূতাবাস, হাইকমিশনের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন তারা। খালেদা জিয়ার নবায়নকৃত পাসপোর্ট ও সরকারের অনুমোদন পেলেই এ বিষয়ে আরও তৎপর হবে বিএনপি।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘সময় ক্ষেপণ করে তার জীবনের ঝুঁকি না বাড়িয়ে বিদেশে যেতে দেয়া উচিৎ এবং এখানে আইনগত কোনো বাধা নেই।’

এদিকে আজ শনিবার (০৮ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এভারকেয়ার হাসপাতালের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার ডা. আরিফ মাহমুদ জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা খালেদা জিয়ার অক্সিজেন অবস্থা ভালো আছে। আজ কোনো সমস্যা নেই। আগের চেয়ে তিনি ভালো আছেন। 

তিনি জানান, দুপুরের পর বসবে খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড। এরপর তার শারীরিক অবস্থা ভালোভাবে জানা যাবে। যেহেতু তার করোনা-সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে এবং তা সহজে যাচ্ছে না, সেক্ষেত্রে অনেকটা স্থিতিশীল আছেন খালেদা জিয়া।

সূত্রঃ সময় নিউজ

শনিবার থেকে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে

তাপমাত্রা কমে সারা দেশে শনিবার (০৮ মে) থেকে ঝড়-বৃষ্টির প্রবণতা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা। 

শুক্রবার (০৭ মে) রাত থেকে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। এদিকে, তাপমাত্রা তাপপ্রবাহের মাপকাঠি না পেরোলেও বাতাসে জলীয় বাষ্পের কারণে অস্বস্তি থাকতে পারে বলছেন আবহাওয়াবিদরা। 

শুক্রবার দুপুরে আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান খান সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘গতকালের তুলনায় আজকের তাপমাত্রা একটু বাড়বে। আগামীকাল থেকে তা আবার কমতে শুরু করবে। তবে তাপমাত্রা বেড়ে তাপপ্রবাহ হওয়ার সম্ভাবনা আপতত কম। শনিবার থেকে ঢাকাসহ সারা দেশেই ঝড়-বৃষ্টি কিছুটা বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি। 

এদিকে, বৃহস্পতিবার (০৬ মে) দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা খুলনায় ছিল ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং ঢাকায় ছিল ৩৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সূত্রঃ সময় নিউজ

ঢাকায় মিলল করোনার ভারতীয় ধরন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদ্বেগ

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরন শনাক্ত হয়েছে। চারজনের নমুনা পরীক্ষা করে একজনের শরীরে এ ধরন শনাক্ত হয়েছে। শনিবার (৮ মে) রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) এ তথ্য জানিয়েছে।

রাজধানীর বনানীতে বসবাস করা ৫৮ বছর বয়সী এক নারীর শরীর থেকে সংগ্রহ করা নমুনায় এই ধরন পাওয়া যায় বলে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) জিনোমিক রিসার্চ ল্যাবরেটরির গবেষক দল। এ সংক্রান্ত তথ্য জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডাটাতে (জিআইএআইডি) প্রকাশিত হয়েছে।

এদিকে ভারতীয় ধরন ছড়িয়ে পড়ার বিষয়ে দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে ব্রিফিং করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে জানান, ছয়টি ভারতীয় ধরন শনাক্ত হয়েছে। দুটি সরাসরি ডাবল মিউটেন্ট, বাকি চারটি কাছাকাছি। এছাড়া, হাসপাতাল থেকে পালানো আটজনের মধ্য এই ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যায়নি বলেও ওই ব্রিফিং এ জানানো হয়।

করোনার ভারতীয় ধরনটি ‘বি.১.১৬৭’ নামে পরিচিত। এ ধরনটিকে অতি সংক্রামক বলে মনে করা হচ্ছে। ভারতে করোনার সংক্রমণ মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়ার ক্ষেত্রে এ ধরন ভূমিকা রাখছে।

এ ছাড়া গত ৫ জানুয়ারি যুক্তরাজ্য থেকে বাংলাদেশে আসা ছয়জনের শরীরে করোনাভাইরাসের আরেক নতুন ধরন পাওয়া যায় বলে আইইডিসিআর থেকে জানানো হয়। 

এর আগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ধরনের অস্তিত্ব মেলে বাংলাদেশে।

সূত্রঃ সময় নিউজ

ফের করোনায় মৃত্যের সংখ্যা বৃদ্ধি, আক্রান্ত ১২৮৫

গতকালের পর ফের ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এসময় আক্রান্ত হয়েছে এক হাজার ২৮৫ জন। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১ হাজার ৮৭৮ জনে দাঁড়াল। শনিবার (৭ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গতকাল মৃত্যের সংখ্যা চিল ৩৭ জন।

বিশ্ব পরিস্থিতি: করোনাভাইরাসের ছোবলে বিপর্যস্ত বিশ্ববাসী। দিন যত যাচ্ছে এর ভয়ঙ্কর ছোবলে প্রাণহানির সংখ্যা ততই বাড়ছে। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর সারি। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যাও। গত একদিনে বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ৭২৬ জনের। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৩৬ হাজার ৪৮৫ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার (৮ মে) সকাল পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৩২ লাখ ৮৩ হাজার ৭২৭ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ কোটি ৭৫ লাখ ৩০ হাজার ৭২৯ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৩ কোটি ৫৭ লাখ ৯৭ হাজার ৫৮৯ জন।

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৯৪ হাজার ৯১১ জনের প্রাণ নিয়েছে করোনা। এছাড়া সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ৩৪ লাখ ১৮ হাজার ৮২৬ জনের দেহে।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ভারত। এশিয়ার মধ্যেও করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশটি। ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ কোটি ১৮ লাখ ৮৬ হাজার ৬১১ জন। মারা গেছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ২৬৫ জন।

তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। ল্যাটিন আমেরিকার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৫০ লাখ ৮৭ হাজার ৩৬০ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৪ লাখ ১৯ হাজার ৩৯৩ জন।

কে. কে. আর – টিমের সেইফার্ট করোনা পজিটিভ,দেশে ফেরার আগে চেন্নাইতে হবে তাঁর চিকিৎসা।

নিউজিল্যান্ডের এই উইকেটরক্ষক- ব্যাটসম্যান দেশ ত্যাগের আগেই নিজের করোনার লক্ষন অনুভব করেছে।

নিউজিল্যান্ডের উইকেটরক্ষক- ব্যাটসম্যান টিম সেইফার্ট, যে আই. পি. এল ২০২১- এর কলকাতা নাইট রাইডার্স দলে ছিল, তাঁর করোনা টেস্ট পজিটিভ এসেছে। এজন্যই সে তাঁর দেশের অন্যান্য ক্রিকেটারদের সাথে একই ফ্লাইটে যেতে পারবে না। তাঁকে ভারতের আহমেদাবাদে আইসোলেশনে থেকে চেন্নাইতে পাঠিয়ে প্রাইভেট হাসপাতালের চিকিৎসা দেওয়া হবে।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট (NZC) এন. জি. সি -এর সংবাদ মাধ্যমের তথ্যমতে সেইফার্ট শনিবারে দেশত্যাগ পূর্ব পি.সি.আর টেস্ট রিপোর্ট জমাদানে ব্যর্থ এবং করোনার লক্ষন অনুভব করছিল। তথ্যমতে সেইফার্ট গত দশ দিনে প্রায় সাতবার করোনা টেস্টে নেগেটিভ হয়েই আসছিল।

চলতি সপ্তাহের প্রথমে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বরুন চক্রবর্তী এবং সন্দীপ ওয়ারীর কোভিড- ১৯ পজিটিভ সনাক্ত করা হয় এবং এটাই আই. পি. এল ২০২১ মৌসুম শুরু হওয়া থেকে প্রথম কোন ক্রিকেটারের করোনা সনাক্তকরণ।

ঈদে প্রাইভেটকারে ভ্রমনের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুনঃ অফিসার ইনচার্জ সোনারগাঁ

আসন্ন ঈদুল ফিতরে ঘরমুখো মানুষকে নিরাপ ত্তার স্বার্থে অপরিচিত প্রাইভেটকারে ভ্রমনের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান।

আজ শনিবার (৮ মে) এক বিজ্ঞপ্তিতে তিনি সোনারগাঁবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়ে এই সচেতনতা বার্তা জানান।


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় “ঈদ-উল-ফিতর খুব সন্নিকটে তাই আমাদের বিভিন্ন প্রয়োজনে যাতায়াত বেড়ে গিয়েছে। আমরা রাস্তাঘাটে যাতায়াতের সময় প্রায়ই বড় ধরনের ভুল করি যেমন প্রাইভেটকারে চড়ে দ্রুত এবং স্বাচ্ছন্দে গন্তব্যে পৌঁছাতে চাই। অপরিচিত প্রাইভেটকারে ওঠার সময় দেখবেন আগে থেকেই ২/৩ জন যাত্রী প্রাইভেটকারে ছিল অথবা ফাঁকা প্রাইভেটকারে উঠলেও আপনি ওঠার পরে আরো ২/৩ জন যাত্রী ওই গাড়িতে উঠে আপনার পাশে বসবে।

আপনি ব্যতীত প্রাইভেট কারের অন্যান্য যাত্রীরা কোন সঙ্ঘবদ্ধ সন্ত্রাসী অথবা ডাকাতদলের সদস্য। যাত্রা শুরুর কিছু সময় পর সুবিধাজনক নির্জন জায়গায় ডাকাতরা আপনার গলায় ছুরি দিয়ে গুরুতর আঘাত করে অথবা আপনাকে হত্যা করে টাকা-পয়সা নিয়ে যাবে। তারপর আপনাকে রাস্তার পাশে ফেলে দিয়ে যাবে।

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত দীর্ঘ হাইওয়ে রাস্তায় পুলিশ সদস্যরা রাতদিন চব্বিশ ঘন্টা পরিশ্রম করেলেও অনেক ক্ষেত্রেই শতভাগ সফলতা অর্জন করা সম্ভব হয় না। আপনাদের উচিত যাতায়াতের পথে অপরিচিত প্রাইভেটকারে শেয়ারে যাতায়াত বন্ধ করা। একটু কষ্ট হলেও ভেঙে ভেঙে অন্য কোন যানবাহনে অথবা লোকাল বাসে চলাফেরা করুন।
আপনাদের একটু সচেতনতাই পারে আপনাদের মূল্যবান জীবন এবং সম্পদ রক্ষা করতে।”

করোনা বিস্তার রোধে আজ থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ

করোনা বিস্তার রোধে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক  আজ (৮ মে) থেকে পাটুরিয়া ও মাওয়া ফেরি ঘাটে দিনের বেলায় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকবে। শুধু রাতের বেলায় পণ্যবাহী পরিবহন পারাপারের জন্য ফেরি চলাচল করবে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি।

শনিবার (৮ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম সময় নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার সকাল থেকেই দেখা যায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে সাপ্তাহিক ছুটি দিনে ঈদে ঘরে ফেরা মানুষ ও যানবাহনের চাপ অনেকটা বেড়ে যায়।

ঘাট কর্তৃপক্ষ জানান, ঈদকে সামনে রেখে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুট দিয়ে ঘরে ফিরছে মানুষ। ভোর থেকে এ নৌরুটে মানুষ ও যানবাহনের ভিড় বাড়তে থাকে। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঘাট এলাকায় যানবাহন ও যাত্রীর চাপ আরও বেড়ে যায়। 

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও আরিচা কাজির হাট নৌরুটে ২০টি ফেরি রয়েছে। যানবাহন ও যাত্রীর চাপ থাকায় ৬টি ছোট ফেরির পাশাপাশি ৪টি বড় ফেরি পারাপারে নিয়োজিত রাখে ঘাট কর্তৃপক্ষ। সরকারে নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা নিয়ে গাদাগাদি করে ঘরে ফিরছেন যাত্রীরা।

ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাম হোসেন জানান, সাপ্তাহিক ছুটি দিন ও অন্যদিকে সামনে ঈদ থাকায় যাত্রী ও যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় ফেরি সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে।

এছাড়াও শুক্রবার সকাল ঈদকে সামনে রেখে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ফেরিঘাটে ঘরমুখো মানুষের ঢল নামে। জধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্যক্তিগত ও ভাড়া যানবাহনে করে ঘাট এলাকায় জড়ো হয় লাখ লাখ মানুষ।

ঘাট কর্তৃপক্ষ জানায়, গণপরিবহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট বন্ধ থাকায় যাত্রীদের অনেক চাপ বেড়ে যায়। ফেরিতে বিঘ্নিত হচ্ছে গাড়ি পারাপার। এতে ঘাট এলাকায় আটকা পড়েছে ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী সহস্রাধিক যানবাহন। এসব যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে নৌরুটে বর্তমানে ১৩টি ফেরি চলাচল করছে।

বিআইডাব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সাফায়েত আহমেদ জানান, সকাল থেকেই ঘাটে দক্ষিণবঙ্গগামী মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। নদী পার হওয়ার জন্য ঘাটে প্রায় সহস্রাধিক যানবাহন অপেক্ষা করছে। লঞ্চ-স্পিডবোট বন্ধ থাকায় ফেরিতে যাত্রীদের প্রচণ্ড চাপে গাড়ি পারাপারে সমস্যা হচ্ছে।

এদিকে শুক্রবার বিকেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, ফেরিতে গাদাগাদি করে ভ্রমণের কারণেও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। এ সময় তিনি দেশের মানুষকে ভিড়ের মধ্যে দোকানপাট ও শপিংমলে না যাওয়ার জন্য আহ্বান জানান। 

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয়াবহতা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, এভাবে চলতে থাকলে হাসপাতালেও জায়গা হবে না। করোনার টিকা পাওয়ার জন্য রাশিয়াসহ বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বিভিন্নভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

করোনা উপেক্ষা করে না.গঞ্জের মার্কেটে মানুষের উপচেপড়া ভিড়

করোনার নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নগরীর মার্কেট, শপিংমলগুলোতে দেখা গেছে উপচেপড়া ভিড়। আজ শুক্রবার সরকারী ছুটির দিনে নগরীর বিপনি বিতান গুলোতে দেখা গেছে মানুষের ভিড়।

করোনার কারনে এবার সরকারের তরফ থেকে কেনাকাটায় নিরুৎসাহিত করা হলেও মার্কেটমুখী মানুষকে আটকানো যায়নি। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় নগরীর চাষাড়ার মার্ক টাওয়ার, হক প্লাজা, সায়েম প্লাজা, সান্তনা মার্কেট সহ প্রায় সব মার্কেটেই ছিল মানুষের জটলা।

স্বাস্থবিধি কোথাও মানা হচ্ছেনা। অধিকাংশ মানুষের মুখেই ছিল না মাস্ক। আর মার্কেটগুলোর প্রবেশদ্বারে ছিল না সুরক্ষাসামগ্রী। করোনার হটস্পট খ্যাত নারায়ণগঞ্জের ডিআইটি, ২ নং রেল গেট, ফ্রেন্ডস মার্কেট সহ সব মার্কেটগুলোর চিত্র একই। নগরবাসীর এমন উদাসীনতায় উদ্বিগ্ন স্বাস্থবিধ এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই মানুষের এই নির্বুদ্ধিতার সমালোচনা করেছেন।

একজন লিখেছেন ‘আমরা আসলে কিছুই শিখিনা, পাশের দেশের মানুষগুলো যখন মহামারীতে কাতরাতে কাতরাতে মরছে আমরা তখন বিজয় উল্লাসে ঈদ করতে বাড়ি যাচ্ছি। একবার ভাবছিও না যে আমরা এক একজন হতে পারি এক একটি ভাইরাস ক্যারিয়ার বোমার সমতুল্য। আসলে সরকারকে বা অন্য কাউকে দোষ দিয়ে কোন লাভ নেই যেখানে আমাদের অসতকর্তা আর নির্বুদ্ধিতাই আমাদের সব চেয়ে বড় শত্রু। বাংলাদেশ সামনে যেই বিপদ ধেয়ে আসছে তোমাকে এক আল্লাহ ছাড়া কেউ বাঁচাতে পারবেনা। ‘ গ্রামমুখী মানুষের স্রোত আর দলবেধে শপিং এর চিত্র ভাবিয়ে তুলছে আমাদের। ভারতের কুম্ভ মেলার খেসারত দিচ্ছে দিল্লী সহ সমগ্র ভারত। আমাদের এই শপিং আর গ্রাম যাত্রার খেসারত কত জীবনের বিনিময়ে দিতে হয় সেটাই এখন দেখার বিষয়।

খালেদা জিয়ার বিদেশ নিতে তালিকায় আরও দুই দেশ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিদেশ নেয়া সংক্রান্ত জটিলতা কাটতে পারে আজ। অনুমতি মিললে বিদেশে নেয়ার সব প্রক্রিয়া শেষ করতে আরও দুই থেকে তিনদিন সময় লাগতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন বিএনপি নেতারা। 

তারা বলছেন-লন্ডনকে অগ্রাধিকার দিয়ে আরও দুটি দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন তারা। সরকারের অনুমোদনের পরই এই প্রক্রিয়া শুরু হবে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে চেয়ে বুধবার (৫ মে) রাত আটটায় আবেদন করে তার পরিবার। এরপর কেটে গেছে ৪২ ঘণ্টা। এখনো সরকারের গ্রিন সিগন্যাল মেলেনি।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) বিকেল সাড়ে তিনটায় আবেদনের কপি হাতে পাওয়ার পর আইনমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, খুব শিগগিরই এ বিষয়ে তিনি মতামত দিবেন। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, জরুরি বিবেচনায় শুক্রবারই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হতে পারে আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত।

বিএনপিও তাকিয়ে সরকারের দিকে। আবেদনে লন্ডনে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ না করলেও সে দেশকেই অগ্রাধিকার দিচ্ছে তার পরিবার। এছাড়া সৌদি আরব, দুবাইয়ের কথাও শোনা যাচ্ছে। সেইসব দেশের দূতাবাস, হাইকমিশনের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন তারা। বেগম জিয়ার নবায়নকৃত পাসপোর্ট ও সরকারের অনুমোদন পেলেই এ বিষয়ে আরও তৎপর হবে দল। যদিও অনুমোদনের পরও বিএনপি নেত্রীকে বিদেশ নিতে আরও দুদিন সময় লাগতে পারে।

এদিকে চিকিৎসাধীন বেগম জিয়ার অবস্থা এখনও স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন এভারকেয়ার হাসপাতালের একজন দায়িত্বশীল চিকিৎসক। তিনি জানান, অক্সিজেন, এন্টিবায়োটিক ও ইনসুলিন দেয়া হচ্ছে বিএনপি নেত্রীকে।

প্রসঙ্গত, গত ১০ এপ্রিল বেগম জিয়া করোনায় আক্রান্ত হলেও, কোভিড-১৯-এর কোনো উপসর্গ ছিল না বলে জানিয়েছিল তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা। এরপর ১৫ এপ্রিল তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নেয়া হলেও বেশ কয়েকটি পরীক্ষা শেষে বেগম জিয়াকে আবারও তার গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় নেয়া হয়। 

ওই রিপোর্টে তার ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। প্রথমবার পজিটিভ হওয়ার ১৪ দিনের মাথায় ২৪ এপ্রিল আবারও করোনা টেস্ট করানো হলে কোভিড পজিটিভই থাকে বেগম জিয়ার। এর তিন দিন পর অর্থাৎ ২৭ এপ্রিল আবারও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে নেয়া হয় একই হাসপাতাল এভারকেয়ারে। 

চিকিৎসকদের পরামর্শে সেখানেই নন-কোভিড ইউনিটে ভর্তি করা হয় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে। এরপর গত ৩ মে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে করোনারি কেয়ার ইউনিট-সিসিইউতে নেয়া হয় তাকে। সেদিন থেকেই তিনি পঞ্চম দিনের মতো সিসিইউতেই আছেন বিএনপির এই নেত্রী।   

ছুটির দিনেও খালেদা জিয়ার জন্য পাসপোর্ট অফিস খোলা, নির্দেশ পেলে প্রিন্ট

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাসপোর্ট নবায়নের জন্য বৃহস্পতিবার (৬ মে) জমা দেওয়া হয় পাসপোর্ট অধিদপ্তরে। শুক্রবার (৭ মে) ছুটি দিন থাকলেও যে কোনো সময় খালেদা জিয়ার পাসপোর্ট প্রিন্ট দেওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিলেন কয়েকজন কর্মকর্তা। সময় সংবাদকে পাসপোর্ট অধিদপ্তরের দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কেউ এখনো পাসপোর্ট প্রিন্ট করার জন্য অনুমতি দেয়নি বলে পাসপোর্ট অধিদপ্তর সূত্র নিশ্চিত করছে। তবে পাসপোর্ট নবায়ন করার জন্য সব প্রস্ততি রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাসপোর্ট অধিদপ্তর। 

জানা গেছে, খালেদা জিয়ার পাসপোর্টের মেয়াদ ২০১৯ সালে শেষ হয়ে যায়। তাই তার নতুন পাসপোর্টের (রি-ইস্যু) জন্য আবেদন করা হয়।

অসুস্থ খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করা হয়েছে। সরকার অনুমতি দিলে করোনায় পরবর্তী জটিলতার উন্নত চিকিৎসার জন্য তিনি যেকোনো দিন লন্ডন অথবা সিঙ্গাপুরে যাবেন।

গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর থেকে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজায়’ তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এফএম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে চিকিৎসা শুরু হয়। করোনা আক্রান্তের ১৪ দিন পার হওয়ার পরও খালেদা জিয়ার করোনা টেস্ট করা হলে ফলাফল পজিটিভ আসে। এরপর কিছু পরীক্ষার জন্য তাকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। প্রথম দফায় পরীক্ষা করে বাসায় ফেরার পর দ্বিতীয় দফায় ২৭ এপ্রিল তাকে ফের হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সোমবার (৩ মে) ভোরের দিকে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে (করোনারি কেয়ার ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সূত্রঃ সময় নিউজ

না.গঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জ অংশে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।বৃহস্পতিবার (৬ মে) সকালে বন্দর উপজেলার মদনপুর ও দুপুরে সোনারগাঁ অংশে এ ঘটনা ঘটে।


নিহত দুজন হলেন- লক্ষ্মীপুর জেলার সিদ্দিকুল্লার ছেলে মোটর সাইকেল চালক জাকির হোসেন ও সোনারগাঁয়ের বাবুল মিয়ার ছেলে বাস হেলপার সাগর।

কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ সূত্র জানায়, সকালে বন্দর উপজেলার মদনপুর অংশে কার্ভাড ভ্যানের মোটর সাইকেল চালক জাকির নিহত হন। দুপুরে সোনারগাঁয়ে ট্রাক ইউটান নেওয়ার সময় দ্রুত গতিতে আসা বাসের সাথে সংঘর্ষে বাসের হেলপার সাগর নিহত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ডিউটি অফিসার (এএসআই) দিলিপ কুমার জানান, মদনপুরের ঘটনায় কার্ভাড ভ্যানের চালক ও সোনারগাঁয়ের ঘটনায় ট্রাক চালককে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ