১৪ নং ওয়ার্ডে ‘ড্রেন নির্মাণে বাধা’ প্রকাশিত সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ

শেয়ার করুণ

৪ জুলাই দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ পত্রিকায় প্রকাশিত ‘ড্রেন নির্মাণে বাধা’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রতিবাদ করেছে ১৪ নং ওয়ার্ডে ও ডিএন রোডে বসবাসকারী মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

রোববার (৪ জুলাই) নেতৃবৃন্দরা এ বিষয়ে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেছেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড. হান্নান আহমেদ দুলাল, দপ্তর সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. বিদ্যুত কুমার সাহা, কার্যকারী সদস্য মাসুম আহমেদ, ১৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এস.এম পারভেজ, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনির স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে তারা বলেন, দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ পত্রিকায় ‘ড্রেন নির্মাণে বাধা’ উক্ত শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। আমরা ডি.এন রোডবাসীর পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ করছি।

‘ড্রেন নির্মাণে বাধা’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রতিবাদ করেছে ১৪ নং ওয়ার্ডে ও ডিএন রোডে বসবাসকারী মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ

আমরা বলতে চাই, আমাদের ডি.এন রোডের কৃতী সন্তান নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহাকে নিয়ে উদ্দেশ্য মূলক ও মিথ্যাচারের আশ্রয় নিয়ে যে কথা গুলো বলেছেন এনসিসি ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধান তাহার মনগড়া এবং নিজের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য তার দায়ভার এড. খোকন সাহার উপরে চাপানোর অপচেষ্টা মাত্র।

এড. খোকন সাহা কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধানকে কখনো ড্রেন নির্মানে বাধাঁ প্রদান করেন নাই। এলাকাবাসী জানে খোকন সাহা কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধানকে সকল প্রকার উন্নয়নের জন্য উপদেশ ও উৎসাহ দিতেন। কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধান ও তাহার মেয়রের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য এহেন মিথ্যাচার করেছেন।

আমরা এলাকার সন্তান হিসেবে বলতে চাই, বোয়ালিয়া খাল ভরাট করে রাস্তা নির্মানের ফলে এবং অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারনে শুধু আমাদের এলাকাই নয় কলেজ রোড ও মাসদাইর এলাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই কৃত্রিম বণ্যার সৃষ্টি হয়। এই এলাকার নিচু ঘর-বাড়িতে ময়লা পানি ঢুকে পরে, যা সার্বক্ষনিক ভাবে ঘরে থাকা নারীদের চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হয়। শুধু তাই নয়, এনসিসি বাসা-বাড়ি থেকে ময়লা পরিস্কারের টাকা নিলেও, এ এলাকার ময়লা পরিস্কার করা হয়না। রাস্তা ময়লার ভাগারে পরিণত হয়, যা এলাকায় র্দুগন্ধের পাশাপাশি বিভিন্ন রোগ জিবানু ছড়ায়, যার ফলে এলাকাবাসী বিভিন্ন অসুখ-বিসুখে আক্রান্ত হয়।

এই অবস্থার স্থায়ী সমাধান এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে দাবী করে আসছে।

নিউজটি শেয়ার করুণ