১৪ দল খুব শিগগিরই মাঠে নামবে

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বিএনপি না এলেও আগামী জাতীয় নির্বাচনে জোটবদ্ধভাবে অংশ নেবে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দল। তিন বছর পর গণভবনে জোট নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত জানান নেতারা। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে বেলা পৌনে বারোটায় শুরু হওয়া বৈঠক চলে প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা।

এসময় নেতারা বলেন, বিএনপিকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলায় ১৪ দল খুব শিগগিরই মাঠে নামবে। প্রায় চার ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি, দ্রব্যমূল্য, জোটের ভবিষ্যৎ ও আগামী সংসদ নির্বাচনসহ নানা বিষয় উঠে আসে।

২০১৮ সালের নির্বাচনে জয়ের পর আর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে কোনো বৈঠক হয়নি ১৪ দলের। গত তিন বছর জোট কার্যকর ছিল না বলে ক্ষোভও জানান শরিক দলের নেতারা।

আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে জোটের কার্যক্রম সাজাতে মঙ্গলবার বৈঠক ডাকে আওয়ামী লীগ। এখনই আসনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে না। এ জন্য আরো আলোচনা প্রয়োজন, বিষয়টি অনেক বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। নির্বাচন একসঙ্গে হবে। এ আলোচনা নির্বাচন ঘোষণার পরে হবে বলেও জানান নেতারা।

বৈঠক শেষে ১৪ দলের মুখপাত্র ও সমন্বয়ক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, ‘আগামী নির্বাচন ১৪ দলীয় জোটবদ্ধভাবে করা হবে। ১৪ দলের সঙ্গে ঐক্য বজায় থাকবে। সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থানে ১৪ দলের যে ভূমিকা, সেটিও অব্যাহত থাকবে।’

বিএনপি-জামায়াতসহ বিরোধী গোষ্ঠী বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে মাঠে নামার চেষ্টা করছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা ১৪ দলকেও মাঠের কর্মসূচি দিয়ে বিরোধী শক্তিকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করার নির্দেশনা দিয়েছেন বলে বৈঠক সূত্র জানিয়েছে।

এ সময় আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, বিএনপিকে মোকাবিলা করার নানা কৌশল ঠিক করা হয়েছে ১৪ দলের সভায়।

এছাড়াও বৈঠকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়েও আলোচনা করেন জোট শরিকরা। তেল, গ্যাস ও জ্বালানির দাম যাতে আর না বাড়ে সেজন্য পদক্ষেপ নেয়ার তাগিদ দেন নেতারা।

সূত্রঃ ইন্ডিপেন্ডেন্ট ২৪ ডট কম

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin