হেরেও মেসির প্রশংসায় পঞ্চমুখ গার্দিওলা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে পিএসজির বিপক্ষে হারের পর ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা প্রশংসায় পঞ্চমুখ আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির। মেসিকে থামানো অসম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন সিটিজেনদের কোচ, যদিও পুরো ম্যাচে খুব কমই বল পেয়েছেন তিনি।

ইনজুরি থেকে ফেরায় ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে একাদশে থাকার সম্ভাবনা কম ছিল সাবেক বার্সা ফুটবলারের। সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো মেসিকে শুরু একাদশে রাখেন। ৭৪তম মিনিটে একটি গোলও করেন তিনি, পিএসজি জয় পায় ২-০ গোলে। এই হারের পর গার্দিওলা বলেন, ‘আমরা পিএসজির সঙ্গে খেলেছি, কিন্তু এটা জানি যে মেসিকে ৯০ মিনিট ধরে থামিয়ে রাখা অসম্ভব।’

স্প্যানিশ কোচ যোগ করেন, ‘সে খুব বেশি বল পেয়েছে ব্যাপারটা এমন না। শত হলেও ইনজুরির পর খেলছে, ছন্দ খুঁজে পেতে একটু সময় লাগবে ভেবেছিলাম। কিন্তু এটাও জানতাম যে একবার ছন্দ পেয়ে গেলে তাকে থামিয়ে রাখা আমাদের জন্য কঠিন হবে। সে দৌড়াতে পারে, বলতে গেলে অপ্রতিরোধ্য।’

পিএসজির ঘরের মাঠ পার্ক দেস প্রিন্সেসে দলের জার্সিতে লিওনেল মেসির প্রথম গোল, কুপোকাত ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি। ২০ হাজার কোটি টাকা দামের একটা ম্যাচ। দুই দলের খেলোয়াড়দের ক্রয়মূল্য এমনটাই দাঁড়ায়। প্যারিসে ফাইনালের আগে আরেক ফাইনাল। মেসির ফেরার ম্যাচ দেখতে স্টেডিয়ামে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। প্রতিপক্ষও যে মেসির সাবেক কোচ পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি।

ক্লাব ব্রুগের সঙ্গে ম্যাচের একাদশ থেকে চার পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে পচেত্তিনোর দল। মাঠে দর্শকদের আড়মোড়া ভাঙার আগেই গোল। ৭ মিনিটে সিটির ডিফেন্স ফাঁকি দিয়ে অবিশ্বাস্য এক গোল করেন ইদরিস গুয়ে। ম্যাচে লিড দ্যা প্যারিসিয়ানদের!

গোল খেয়ে অল অ্যাটাক ফুটবল খেলতে থাকে সিটিজেনরা। গোল পরিশোধে হন্যে হয়ে ওঠে গ্রিলিশ-ডি ব্রুইনারা। ২৫ মিনিটে ম্যান সিটির জোড়া আক্রমন পোস্টে লেগে ফেরে। ভাগ্যদেবী যেনো করল রসিকতা। প্রথমার্ধের শেষ ভাগে গোল পরিশোধের বন্য সিটিজেনরা এমন আক্রমণ চালায় বারবার। তবে পিএসজির যে আছে এক বাজ পাখি ডোনারুম্মা। বারবার তার গ্লাভস মান বাঁচানোয় লিড নিয়ে বিরতিতে যায় পিএসজি।

মেসি, নেইমার ও এমবাপ্পের ৩৪০ মিলিয়ন ইউরোর আক্রমণ ভাগে আক্রমণ বিশ্ব অবলোকন করে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের ৭৪ মিনিটে। কাউন্টার অ্যাটাক থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পে বুদ্ধিদীপ্ত পাসে পিএসজির জার্সিতে প্রথম গোল করেন লিওনেল মেসি! সব অপবাদ যেন বিগ ম্যাচে ঘুচিয়ে দিলেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

এর আগে দুই দলের পাঁচ দেখায় কখনো জিততে পারেনি পিএসজি। কিন্তু এবার যে ভিন্ন গল্প। তাই তো পুরো ম্যাচে যে কটা আক্রমণ করেছে ম্যানচেস্টার সিটি তার অর্ধেকও করতে পারেনি মেসি-নেইমারদের দল। তবুও ম্যাচ জিতল পিএসজি। জয়ের বড় নায়ক পিএসজির ইতালিয়ান গোলরক্ষক ডোনারুম্মা। মেসির প্রথম গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথম জয় পিএসজির। তাও আবার ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে থেকেই। ২ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৪।

সুত্রঃ সময় নিউজ.টিভি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin