হিন্দু-মুসলিমদের ক্ষেপিয়ে না.গঞ্জকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা হচ্ছেঃ আইভি

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নিউজ নারায়ণগঞ্জকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘এখানে যে সমস্ত হিন্দু মুসলিমদের ক্ষেপিয়ে আজকে নারায়ণগঞ্জে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির চেষ্টা করা হচ্ছে। যেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে দায়ি থাকবে শামীম ওসমান।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে এবার শহরের দেওভোগে জিউস পুকুর পাড়ে গণসমাবেশ হয়েছে। ৬ ফেব্রুয়ারী বিকেলের ওই গণসমাবেশের পর প্রতিক্রিয়া এসেছে মেয়র আইভীর কাছ থেকে। ওই সমাবেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতাদের চেয়ে বেশী ছিলেন এমপি শামীম ওসমানের অনুগামীরা।

ডিআইটি জামে মসজিদ উচ্ছেদ করার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ডিআইটি মসজিদ নিয়ে কোন কথাই বলিনি। এসব মিথ্যা কথা। আউয়াল সাহেব বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন এগুলো নিয়ে পরে বলা হবে।’

৬ ফেব্রুয়ারী শনিবার দুপুরে ১৪ নং ওয়ার্ডের দেওভোগ জিউস পুকুরের পাশের সড়কে গণসমাবেশের আয়োজন করেন জেলা হিন্দু সম্প্রদায়। সেই সমাবেশে ওসমান বলয়ের অনুগামীরা বরাবরের মত অংশগ্রহণ করে জ্বালামীয় বক্তব্য দিয়ে গেছেন।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল চ্যাটার্জী, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভূইয়া সাজনু, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মুহাম্মদ মোহসীন মিয়া, ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধান, ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ, সেক্রেটারী রাফেল প্রধান, মহানগরের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ, সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, সেক্রেটারী মিজানুর রহমান সুজন প্রমুখ।

সূত্রঃ নিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin