স্বাভাবিক হচ্ছে নগরীর জনজীবন

শেয়ার করুণ

কঠোর লকডাউন উপেক্ষা করে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে জনজীবন। যতই দিন যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের মূল সড়কগুলোতে বাড়ছে মানুষের চলাচল।

কঠোর লকডাউনের সপ্তম দিনে সরেজমিনে জেলার প্রানকেন্দ্র চাষাড়ায় গিয়ে দেখা যায় অন্য যে কোন দিনের তুলনায় মানুষের চলাচল ছিল অনেক বেশি। ব্যক্তিগত গাড়ী আর রিকশা, অটোরিকশা, ইজিবাইক চলতে দেখা গেছে চাষাড়ায়। প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী আর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতি ছিল অন্যদিনের মতই। তবে আজ চাষাড়ায় সেনাবাহিনীর উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় নি। প্রশাসনের জেরা উপেক্ষা করেই নিজেদের কাজে বের হচ্ছেন নগরবাসী।

প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে ধীরে ধীরে খুলতে শুরু করেছে চাষাড়ার অস্থায়ী দোকানগুলো। চায়ের দোকান, ফলের দোকান, ফুলের দোকান, টেইলার্স আর ছোট ছোট মুদি দোকানও খোলা থাকতে দেখা গেছে চাষাড়ার আশেপাশে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চায়ের দোকানদার জানান গত তিন ধরে দোকান চালাচ্ছেন তিনি। মানুষ কম থাকায় বেচা কেনা কম। তবে প্রতিদিনই বেচাবিক্রির পরিমান বাড়ছে। প্রশাসনিক কোন বাধার সম্মুখীন হন কীনা জানতে চাইলে তিনি জানান, পুলিশের আসার খবর পেলে দোকানের শাটার ফেলে নিরাপদ যায়গায় চলে যান।

অবস্থা স্বাভাবিক হলে আবার এসে দোকান শুরু করেন। তিনি আরো জানান পাশের দোকানদাররাও এইভাবে দোকান চালাচ্ছেন।

এছাড়াও জেলার খানপুর, আমলাপাড়া, ২ নং রেলগেট, ডি.আই.টি, পঞ্চবটি, শিবুমার্কেট এলাকায়ও দেখা গেছে মানুষের উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি। ছোট ছোট দোকানপাট খুলতে দেখা গেছে ব্যবসায়ীদের।

নিউজটি শেয়ার করুণ