সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের স্কুল ভেঙে ফেলায় জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

চাষাঢ়া রেলওয়ে স্টেশনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের স্কুলটি ভেঙ্গে ফেলার প্রতিবাদে এবং তাদের জন্য স্থায়ী ছাউনি তৈরির দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছে নারায়ণগঞ্জ ছাত্র ইউনিয়ন। রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিনের কাছে এ স্মাারকলিপি প্রদান করেন।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ রয়েছে, অনেকদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ চাষাঢ়া রেলওয়ে স্টেশন প্লাটফর্ম প্রাঙ্গণে জনৈক শিক্ষানুরাগী দ্বারা সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালিত হয়ে আসছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে, স্টেশন কর্তৃপক্ষের প্রভাবে তা অন্যায়ভাবে উচ্ছেদ করা হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির আশেপাশের সবকিছু আগের অবস্থানেই আছে। এর ফলে স্টেশন কেন্দ্র করে গড়ে উঠা অসংখ্য দরিদ্র মানুষের আবাসস্থলে বসাবসরত সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা যে কিঞ্চিত শিক্ষার আলো দেখতে পেয়েছিল তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এবং নিরক্ষরতা অন্ধকারে পর্যবসিত হচ্ছে। এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ এবং প্রতিষ্ঠানটির একটি স্থায়ী বন্দোবস্তের দাবি জানায় ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।

স্মারকলিপি প্রদানের বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি চিত্রা ঘোষ পরমা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নারায়ণগঞ্জ ছাত্র ইউনিয়ন জানায়, ‘নারয়ণগঞ্জ শহর সংসদের নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করতে গেলে অনভিপ্রেত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পথশিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার এই দাবিকে জেলা প্রশাসক সম্পূর্ণ উড়িয়ে দেন, এবং স্মারকলিপিকে ইস্যু সৃষ্টির চেষ্টা বলে উল্লেখ করেন।’ এতে ক্ষোভ প্রকাশ করে ছাত্র ইউনিয়ন নারায়ণগঞ্জ শহর সংসদ।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া রেলওয়ে স্টেশনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য অবৈতনিক শিক্ষাদান কার্যক্রম চালাতো শুভ চন্দ্র দে নামে এক তরুণ। করোনার কারণে কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও সাধারণত ৭০-৮০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশু পড়তো সেই স্কুলে। স্টেশনেই একটি টংয়ের দোকানে রাখা হতো ব্ল্যাকবোর্ড, চক, পেন্সিল, খাতা, কলমসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ। গত ২৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে সেই টংয়ের দোকানটি চাষাঢ়া প্ল্যাটফর্ম থেকে ফেলে দেন স্টেশন ইনচার্জ খাঁজা মো. সুজন ভেঙ্গে ফেলে।

সূত্রঃপ্রেস নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin