সিদ্ধিরগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বলাৎকার, আটক শিক্ষক

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আগেও আদরের কথা বলে করা হয়েছে বলাৎকার। বলাৎকার করে কোউকে না বলার জন্য ভুক্তভোগী শিশুকে করা হয়েছে মারধর। দিয়েছে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি। মার খাবার ভয়ে একাধিক বার বলাৎকারের ঘটনা কেউকে বলেনি ভুক্তভোগী মাদ্রাসার সেই শিশু শিক্ষার্থী।

২ নভেম্বর (শনিবার) এমনই ঘটনা ঘটেছে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি দক্ষিন সাহেবপাড়া এলাকার জামিয়াতুল ইমান বোর্ডিং মাদ্রাসায়। মাদ্রাসা শিক্ষকের রুমে নিয়ে গিয়ে বলাৎকারের ঘটনা জানাজানির পর এলাকাবাসী অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশে দেয়। গ্রেফতার মিনহাজুর রহমান সিলেটের জকিগঞ্জের কোনাগ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে। পরে ভুক্তভোগী শিশুর পিতার দায়ের করে। এবং মামলায় আসামিকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, আট মাস যাবৎ সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজি দক্ষিন সাহেবপাড়ার জামিয়াতুল ইমান বোর্ডিং মাদরাসায় পড়াশোনা করে। গত ২ নভেম্বর দুপুরে বোর্ডিং মাদরাসার আবাসিক শিক্ষক মিনহাজুর রহমান নিজের রুমে বলাৎকার করে। এর আগেও আদর করার কথা বলে কয়েকবার বলাৎকার করে অভিযুক্ত শিক্ষক। বিষয়টি পরিবারের সদস্যসহ অন্য কাউকে যেন না বলে সে জন্য মারধর ও বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি এবং প্রাণে মেরে ফেলার হুমকী দেয়।

এ বিষয়ে রোববার সকালে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ যানায়, এ ঘটনায় শনিবার রাতে মিনহাজুর রহমান (২৭) নামে ওই মাদরাসার শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের পর সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। শিশুটির মেডিকেল পরীক্ষা ও ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ডের প্রক্রিয়া চলছে।গ্রেফতার মিনহাজুর রহমান সিলেটের জকিগঞ্জের কোনাগ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে।

সূত্রঃলাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin