সিদ্ধিরগঞ্জে পুত্রবধুকে যৌন নিপিড়নের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতার

শেয়ার করুণ

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পুত্রবধুকে যৌন নিপিড়নের অভিযোগে শ্বশুর কামাল হোসেন খন্দকার ওরফে গ্যাস কামাল (৬০) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার (৯ এপ্রিল) রাত ১১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

এরআগে সন্ধ্যায় তার পুত্রবধু বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। গ্রেফতারকৃত কামাল হোসেন খন্দকার ওরফে গ্যাস কামাল সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকার মৃত তাহের ফকিরের ছেলে।

এ ঘটনায় রবিবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে নারী ও নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর তাকে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে ভুক্তভোগীকে তার শ্বশুর বিভিন্ন ধরনের কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছে। এতে সে রাজি না থাকায় প্রায় সময়ই তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করত। গত ২৪ মার্চ বিকেলে ভুক্তভোগীর স্বামীকে দোকান থেকে কয়েল আনতে পাঠায় শ্বশুর কামাল হোসেন খন্দকার ওরফে গ্যাস কামাল।

এ সুযোগে শ্বশুর কামাল ভুক্তভোগীর রুমের দরজা বন্ধ করে তাকে ঝড়িয়ে ধরে তার সাথে শারিরিক মেলামেশা করার প্রস্তাব দেয় এবং তার স্পর্শ কাতর স্থানে হাত দেয়। এতে বাধা দিলে তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।

এক পর্যায়ে তার ডাক-চিৎকারে তার ননদ মোসা: আমেনা আক্তার ও কামরুন নাহার চাঁদনী এগিয়ে আসলে কামাল তার পুত্রবধুকে ছেড়ে দেয় এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দিয়ে রুম থেকে চলে যায়। বিষষটি ভুক্তভোগী তার স্বামী বাসায় আসলে বিস্তারিত জানালেও সে কোনো কর্নপাত করে নাই।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, সিদ্ধিরগঞ্জে অসংখ্য অবৈধ গ্যাস সংযোগের মূলহোতা এই কামাল হোসেন খন্দকার ওরফে গ্যাস কামাল। তার বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ। বিশেষ করে নারী ঘটিত বিষয়ে রয়েছে একাধিক অভিযোগ।

এর আগে সে নিজ বাড়িতে ধর্ষণের ঘটনারও বিচার করে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালিয়েছিলো। সে অবৈধ টাকার জোরে নাসিক ১ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচন করে বিপুল ভোটে হেরেছেন। পুলিশ নিরেপক্ষ তদন্ত করলেই তার সব অপকর্ম বেরিয়ে আসবে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুত্র বধুর অভিযোগের সত্যতা মিললে কামালকে শনিবার রাত ১১টার দিকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসি।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মশিউর রহমান পিপিএম বার জানান, গ্রেপ্তারকৃত কামাল হোসেন খন্দকারের ছেলে আব্দুল আজিজ জুয়েল কিছু বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হওয়ায় প্রায়ই তার পুত্রবধুকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

বিবাদির প্রস্তাবে রাজি না থাকায় বিবাদী তাকে (ভিক্টিমকে) প্রায়ই ভয়ভীতি প্রদর্শণ করত। পরে ভুক্তভোগীর অভিযোগ পেয়ে অভিযুক্তকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়।

সূত্রঃ নারায়ণগঞ্জ টাইমস

নিউজটি শেয়ার করুণ