সিদ্ধিরগঞ্জে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে পুলিশের অভিযান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলার সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক দখল করে গড়ে উঠা প্রায় ৫ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় কাঁচপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়। উচ্ছেদ অভিযানে অংশ নেয় নারায়ণগঞ্জ সড়ক ও জনপথ, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ, জেলা ট্রাফিক পুলিশ ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ।

মহাসড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক রাখতে এবং যাত্রী সাধারণের চলাচলে ভোগান্তি কমাতে এই উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। উচ্ছেদ অভিযানে গিয়ে দেখা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে অসংখ্য দোকানপাট। ওই এলাকার প্রভাবশালী চাঁদাবাজ চক্র এসব দোকানপাট গড়ে তুলে দীর্ঘদিন ধরে নির্দিষ্ট হারে হকারদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় করে আসছিল। এসব দোকান থেকে এককালীন ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা অগ্রিম নিয়ে দৈনিক ১৫০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত ভাড়া আদায় করা হয়ে থাকে। এ নিয়ে প্রায় সময়ই বিভিন্ন প্রভাবশালী মহলগুলোর মধ্যে সংঘর্ষ বাধতো। উচ্ছেদ অভিযান শিমরাইল মোড় ছাড়াও মৌচাক ও সানাড়পাড় বাসস্ট্যান্ড এর আশপাশেও চালানো হয়।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, দীর্ঘদিন থেকে এসব অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য অবৈধ দখলদারদের বলা হয়েছে। এসব অবৈধ স্থাপনা না সরিয়ে নেয়ার এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। জনগনের জায়গা জনগণের চলাচলেন সুবিধার্থে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। আমাদের এই অভিযান চলমান থাকবে। দোকান দারদের প্রতি আমাদের অনুরোধ থাকবে তারা জনগন এবং যানযটের কথা মাথায় রেখে মহাসড়কের আশেপাশে কোন দোকান বসাবেন না।

তিনি আরও বলেন, এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পর পুনরায় যাতে দোকানপাট বসতে না পারে সেজন্য কাচঁপুর হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে মনিটরিং করা হবে। মহাসড়কে প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলায় এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin