সাংবাদিকতার নামে এসব কী হচ্ছে, প্রশ্ন হাইকোর্টের

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin


ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোসহ বিভিন্ন অভিযোগে গ্রেপ্তার আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীরের কর্মকাণ্ডের প্রতি ইঙ্গিত করে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (০৩ আগস্ট) ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তিনদিনের রিমান্ড শেষে হেলেনাকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর রাজধানীর পল্লবী থানায় হওয়া প্রতারণা ও অনুমোদনহীন টেলিভিশন পরিচালনায় তার বিরুদ্ধে টেলিযোগাযোগ আইনে মামলায় রিমান্ডের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে চারদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

পরে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ প্রশ্ন করেন, ইদানীং সাংবাদিকতার নামে এ সব কী হচ্ছে? হাইকোর্ট বলেন, “দেখেন না, এখন সাংবাদিকতার নামে কী হচ্ছে? কী এক জাহাঙ্গীর বের হয়েছে। আইপি টিভির নামে কী কী যেন করে? আইপি টিভি নামে কত চ্যানেল, কত টিভি বের হয়েছে।”
দুদকের এক কর্মকর্তার বদলির আদেশ নিয়ে রিট আবেদনকে কেন্দ্র করে আদালতের আদেশ নিয়ে চট্টগ্রামের কয়েকটি পত্রিকায় অসত্য প্রতিবেদন প্রকাশ করা নিয়ে চলমান মামলায় এসব কথা বলেন হাইকোর্ট। আদালতের আদেশ নিয়ে সৃষ্ট ঘটনায় বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চট্টগ্রাম কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিনের বদলির আদেশ চ্যালেঞ্জ করে দাখিল করা এক রিট আবেদনকে কেন্দ্র করে আদালতের আদেশ নিয়ে চট্টগ্রামের বিভিন্ন দৈনিক ও অনলাইন পত্রিকায় অসত্য প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।


হাইকোর্ট সোমবার (২ আগস্ট) এক আদেশে ওইসব পত্রিকায় সংশোধনী ছাপার নির্দেশ দেন।
এদিকে গুলশান থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ও পল্লবী থানায় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গত রোববার (১ আগস্ট) গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরে গুলশান থানায় করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায়ও তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। ওই মামলায় তাকে তিন দিনের রিমান্ড দেওয়া হয়।
গত শুক্রবার (৩০ জুলাই) ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী তার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
গত ২৯ জুলাই রাতে হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জাম, ওয়াকিটকি ও বিদেশি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব। ওইদিন রাতে মিরপুরে হেলেনার জয়যাত্রা ফাউন্ডেশন এবং জয়যাত্রা আইপি টিভি ভবনেও অভিযান চলানো হয়।
আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে অব্যাহতি দিয়ে আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin