সরকার-জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই ওয়ার্ডের কাজ করব

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ সিটি করেপারেশেনের ৮নং ওয়ার্ডে প্রায় ২০০ কোটি টাকার কাজ হয়েছে, এখনো চলমান। এ ওয়ার্ডে হাসপাতালও করা হবে। এই শহরে আমি সকল ধর্মের জন্য কাজ করেছি। সবাইকে প্রধান্য দিয়ে সবার জন্য কাজ করেছি। কিন্তু আমি কর্মী শেখ হাসিনার। দল করি আওয়ামীলীগ। এর কোন দিন বাহিরে যাবো না। 


মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিকের ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ের উদ্বোধন ও নাগরিক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এইসব কথা বলেন। 
 
তিনি আরো বলেন, সরকারের টাকা, জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই তো ওয়ার্ডের কাজ করব, বাবার সম্পদ বিক্রি করে তো কাজ করব না। বাবার সম্পদ যা ছিল দলের জন্য বিক্রি করে দিয়েছে। ১৯৭৫ সালের পর আওয়ামীলীগের ভারসাম্য রক্ষা ও দলকে চালানোর জন্য আমার বাবা নিজের সম্পদ বিক্রি করে দিয়েছে। আমার কিছু নাই যে বিক্রি করে করে আপনাদের দিবো। সরকার থেকে প্রকল্প ভিত্তিক প্রচুর টাকা পেয়েছি, সেই টাকায় সাতাশটি ওয়ার্ডে সম পরিমাণে উন্নয়ণের কাজ করেছি। সবই জনগণের জন্য করেছি, কোন জনপ্রতিনিধিদের শ্রেনীতে ফেলে কোন কাজ করিনি।  


মেয়র বলেন, বাংলাদেশের প্রতিজেলায় মুক্তিযোদ্ধা ভবন হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা ভাতা দিচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে ব্যাপক কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া না করলে আমাদের মুনাফেকী বলা হবে। আমি আজকে নির্বাচনী সভা করতে আসিনি। কিছুদিন পূর্বেও শীতলক্ষার ওইদিকে বলেছিলাম, যদি প্রধানমন্ত্রী আমাকে নৌকা দেয়, যদি আমি নির্বাচন করি, আমি আপনাদের কাছে  ভোট চাইতে আসব। এখন আমি এখানে এসেছি, কারণ এটা আমার কাজের অংশ। প্রতি ওয়ার্ডে ১ হাজার টার্গেট নিয়ে টিকা দেওয়া হয়েছে। 


৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রূহুল আমিন মোল্লার সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান ভূইয়া জুলহাসসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধা ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্রঃ নারায়ণগঞ্জ টাইমস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin