সম্পত্তির বিরোধ, বাবার লাশ দাফন বাঁধা ছেলে-মেয়ের

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার ৫নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে সম্পত্তির বিরোধে বাবার লাশ দাফন বাঁধা দেয় ছেলেরা। ছোট ছেলে, তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের নামে সম্পত্তি লিখে দেওয়ায় অন্য ছেলে মেয়ে নাতি-নাতনিরা ন্যাক্কারজনক এ ঘটনা ঘটায়।

এ নিয়ে এলাকায় নিন্দার ঝড় বইছে। মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বিকেলে উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বানসা গ্রামের পশ্চিম হাজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মধ্যস্থতায় ২২ ঘন্টা পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাশ দাফন করা হয়।

৫নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান বাহালুল বিষয়টি বিডি২৪লাইভকে নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, কয়েক বছর আগে তিনি তাঁর ছোট ছেলে আবুল কালামের স্ত্রী জাহানারা বেগম ও সন্তানদের নামে ৩৯ শতাংশ জমি রেজিষ্ট্রি করে লিখে দেন।

এই নিয়ে তার অন্য ২ ছেলে ও ২ মেয়ের সাথে তার চরম বিরোধ সৃষ্টি হয়।গতকাল সোমবার ২১ মার্চ রাত ৮ টার দিকে বার্ধক্যজনিত কারণে বৃদ্ধ আবদুল মান্নানের মৃত্যু হলে তাঁর অপর ২ ছেলে ও ২ মেয়ে এবং নাতী-নাতনীরা তাঁর লাশ দাফনে বাধা দেয়।

তিনি আরও বলেন,খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় গোলাম সরোয়ার, সালা উদ্দিন মেম্বার,বেল্লাল মাঝি,সাবেক মেম্বার আবুল খায়ের,বেল্লালসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মধ্যস্থতায় বিষয়টি সমাধানের আশ্বাসে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টায় মরহুমের জানাযা শেষে লাশ দাফন করা হয়।

লাশ দাফনে বিলম্বের কারণ জানতে চাইলে জাহানারা বেগমের ভাই আরমান পাপ্পু বিডি২৪লাইভকে জানান, কিছুটা সমস্যা হয়েছে। সমস্যা সমাধানের আশ্বাসে মরহুমের দাফন করা হয় এবং আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বাহালুল চেয়ারম্যানসহ ২ নম্বর ওয়ার্ডের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে যেভাবে সুন্দর হয় সেভাবে মরহুম মান্নানের সম্পত্তির সমাধান করা হবে।

সূত্রঃ বিডি২৪লাইভ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin