সব কটা বেয়াদবকে একসঙ্গে সাইজ করব, বললেন ফারিয়া

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এক মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে অভিনয় করে সবার নজর কেড়ে নিয়েছিলেন ফারিয়া শাহ্‌রিন। সেও প্রায় এক দশক আগের কথা। গতকাল আবার কথা দিলেন এই মডেল ও অভিনয়শিল্পী, নিজেকে। কিছু মানুষের আচরণে ক্ষুব্ধ ফারিয়া সংকল্প করলেন নিজের সঙ্গে, বেয়াদবদের শায়েস্তা করবেন তিনি।

ফারিয়া শাহ্‌রিন। ছবি: ফেসবুক থেকে

ফেসবুক পোস্টে ক্ষুব্ধ ফারিয়া শাহ্‌রিন লিখেছেন, মানুষ আমার ব্যাকগ্রাউন্ড ভুলে যায়। আমি বস্তি থেকে উঠে এসে মিডিয়ায় কাজ শুরু করিনি। আমার অতিরিক্ত বিনয়ের কারণে মানুষ সেটা ভুলে যায়। আমার জায়গায় অন্য কোনো মেয়ে হলে সারা দিন অনেক ভাব নিত, আজারা ঢং দেখাত। সবাইকে দৌড়ের ওপর রাখত, যেটা আমি কোনো দিনই করিনি। সব সময় খুব সাদামাটা থাকি। কোনো ডিমান্ড করি না, কিচ্ছু না। অনেক হয়েছে। বিনয় দেখিয়ে লোকজনকে মাথায় তুলেছিলাম। মাথায় উঠে তারা এখন ডুগডুগি বাজানো শুরু করেছে। এখন আমার নিজেকে দেখানোর সময় হয়েছে। বিনয়কে কবর দিয়ে দিলাম। সব কটা বেয়াদবকে একসঙ্গে সাইজ করব এবার। কথা দিলাম।’

ঘটনা জানতে চাইলে ফারিয়া বললেন, ‘সব মানুষের সঙ্গে সৎ, সুন্দর ও স্বাভাবিকভাবে মিশলে দেখি দুর্বলতা ভাবে। আমি আসলে আমার কাজ ও কাজের অঙ্গনের সবার সঙ্গে সৎভাবে থাকার চেষ্টা করি। সবার সঙ্গে বিনয় দেখাই। অনেকেই দেখি, এসবের মর্ম বোঝে না, অসম্মান করে। মিডিয়ায় কিছু ইঁচড়ে পাকা আছে, ভাবছি তাদের শায়েস্তা করা দরকার। এও ভাবছি, সবার জন্য একই আচরণ আর নয়। মানুষ ভেদে আচরণের ধরনও বদলাতে হবে।’

ফারিয়া শাহ্‌রিন। ছবি: ফেসবুক থেকে

২০০৭ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হন ফারিয়া শাহ্‌রিন। এরপর নাটক আর বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেন। অভিনয় করেছেন চলচ্চিত্রেও। তবে তাঁর সমসাময়িকদের তুলনায় ফারিয়ার কাজের সংখ্যা একেবারেই কম। এরই মধ্যে মালয়েশিয়ার এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ে মিডিয়া মার্কেটিংয়ে পড়াশোনা করতে যান তিনি। ছুটিতে দেশে এসে কাজ করেন।

পড়াশোনা শেষে মাস কয়েক হল দেশে ফিরেছেন তিনি। পরিচালকের চাহিদার কারণে অভিনয় ও বিজ্ঞাপনচিত্রের কাজে ব্যস্ত হচ্ছেন এই মডেল ও অভিনয়শিল্পী। ঈদুল আজহায় কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin