সড়ক অবরোধ, পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

পুলিশের সঙ্গে আদমজী ইপিজেডের কুনতং এ্যাপারেলস কারখানার শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কয়েক রাউন্ড কাঁদানে গ্যাস ও জল কামান ব্যবহার করে। বকেয়া বেতনের দাবীতে দ্বিতীয় দিনের মতো আদমজী ইপিজেডের কুনতং এ্যাপারেলসের শ্রমিকরা আন্দোলন ও বিক্ষোভ কর্মসুচি পালনের সময় এই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় আদমজী ইপিজেডের প্রধান ফটকের সামনের রাস্তায় জড়ো হয়ে আন্দোলন শুরু করে কারখানাটির কয়েক হাজার শ্রমিক। এসময় শিমরাইল-আদমজী-চাষাঢ়া সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। যার কারণে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট। ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ। সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশ বাধা দিলে শ্রমিক পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। শ্রমিকরা ইট পাটকেল ছুঁড়লে পুলিশ টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকদের রাস্তা থেকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় আহত হন অন্তত পনেরজন। বিক্ষোভের সময় শ্রমিকরা সড়কের ওপর আগুন জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানায়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার দ্বিতীয় দিনের মতো সড়ক অবরোধ করে বকেয়া বেতন আদায়ের দাবীতে আন্দোলন করে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করে শ্রমিকরা। এক পর্যায়ে শিল্প পুলিশ, জেলা পুলিশ ও বেপজার নিরাপত্তা কর্মীরা শ্রমিকদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তাদেরকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকরা। পরে শিল্প পুলিশ কয়েক রাউন্ড কাদানে গ্যাস ও জল কামান দিয়ে পানি নিক্ষেপ করলে শ্রমিকরা সব ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পরে তারা ইপিজেডের মূল গেটের সামনে থেকে সরে গিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে গিয়ে সড়কে অগ্নি সংযোগ করে। পরে সেখান থেকেও তাদের সরিয়ে দেয় পুলিশ।

শ্রমিকদের অভিযোগ, আদমজী ইপিজেডের কুনতং এপারেলস লিমিটেড (ফ্যাশন সিটি) গত বছরের ১০ আগষ্ট হঠাৎ দুই দিনের ছুটি ঘোষণা করে ফ্যাক্টরী বন্ধ করে দেয়। তবে বন্ধ হওয়ার পরেও শ্রমিকদের ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা করে বেতন পরিশোধ করে আসছিলো মালিক পক্ষ। তার ধারাবাহিকতায় আজ বেতন দেওয়ার কথা থাকলেও গার্মেন্টস কর্তৃপক্ষ আগামী ১২ জানুয়ারি বেতন দেওয়ার ঘোষণা দেয়। যার কারণে শ্রমিকরা সকাল ৮টায় আদমজী ইপিজেডের সামনে অবস্থান নেয়। সেখানেই তাদের উপরে আনসার ও ইপিজেডের নিরাপত্তা কর্মীরা চড়াও হয় বলে অভিযোগ করেন তারা। এক পর্যায়ে পুলিশ, ইপিজেডের আনসার ও নিরাপত্তাকর্মীরা শ্রমিকদের লাঠিচার্জ করে। পুলিশ বিনা উস্কানিতে তাদের উপর লাঠিচার্জসহ কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে দাবি করে তাদের কমপক্ষে পনেরজন শ্রমিক আহত হওয়ার কথা জানান।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ-৪ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন জানায়, আদমজী ইপিজেডের কুতনং এ্যাপারেলসে প্রায় ৬০০০ হাজার শ্রমিক কাজ করতো। লে-অফ চলাকালীন সময়েও প্রতিষ্ঠানটি শ্রমিকদেরকে বেতনের একটা অংশ প্রদান করে আসছিলো। শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে মালিকপক্ষ কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করায় এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। পরে মালিকপক্ষের সাথে আলাপ আলোচনা করে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পাইয়ে দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। তবে এরপরেও শ্রমিকরা রাস্তা থেকে সরে না গিয়ে পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ ও কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়তে বাধ্য হয়।

সূত্রঃপ্রেস নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin