সকলের সাথে সমন্বয়ে করে জেলা আইনজীবী ফোরামের কমিটি করা হবে : তৈমূর

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নতুন কমিটি নিয়ে সরগরম হয়ে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া। বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মধ্যে চলছে নানা আলাপ আলোচনা। বিভিন্ন পদ প্রত্যাশীরা নিজেদেরকে জাহিরের জন্য নানা তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই সাথে ছুটির দিনেও নতুন কমিটি গঠনের ব্যাপারে তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

তারই অংশ হিসেবে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ার বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের অভিভাবক খ্যাত প্রভাবশালী আইনজীবী ও বিএনপির চেয়াপর্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার তার মাসদাইর এলাকার মজলুম মিলনায়তনে বিভিন্ন পর্যায়ের আইনজীবীদের নিয়ে দফায় দফায় মিটিং করেছেন। সেই সাথে আগামীতে তিনি এই আলাপ আলোচনা বহাল রাখবেন। কমিটি গঠনের আগ পর্যন্ত এভাবে চলতে থাকবে।

কমিটি গঠন প্রসঙ্গে, অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, সকলের সাথে সমন্বয় করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী ফোরামের কমিটি করা হবে। এটা এজন্য করা হবে যেন কারও মধ্যে কোনো বিদ্বেষ না থাকে। কারণ আমাদের বারের নির্বাচনগুলো করতে হবে। বিভিন্ন কারণে নারায়ণগঞ্জের নির্বাচন জটিল অবস্থার মধ্যে চলে গেছে। আইনজীবীদের যদি সমন্বয় না হয় তাহলে নির্বাচন হবে।

অনেকে মনে করে কেন্দ্র থেকে আমি কমিটি নিয়ে আসবো এটা হবে না। আগে বহু কমিটি কেন্দ্র থেকে নিয়ে আসা হয়েছে কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। এখন আমাদের দায়িত্ব হলো দলকে ঘুরিয়ে দাদ করানো। দল যেভাবে ঘুড়িয়ে দাঁড়াবে সে ব্যবস্থাই করবো। তবে আমি চাই যাদের আন্দোলন সংগ্রামে ভূমিকা আছে এবং যাদের ইমেজ ভাল তারা যেন দায়িত্ব পায়। কমিটি গঠনের ব্যাপারে অযাযিথ কোনো কাজ হবে না।

জানা যায়, সবশেষ ২০১৭ সালের ৭ জুন অ্যাডভোকেট সরকার হুমায়ুন কবিরকে সভাপতি এবং অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লাকে সাধারণ সম্পাদক করে ২৮৭ বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়ছিল। কিন্তু এই কমিটিকে মেনে নেননি আইনজীবীদের একাংশ। ওই বছরের ১৮ জুন নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের হানিফ খান মিলনায়তনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার ব্যানারে সংবাদ সম্মেলনে এ কমিটিকে ‘অগণতান্ত্রিক ও বে-আইনি’ আখ্যায়িত করে তা বাতিলের দাবি জানিয়ে ১৪০ জন আইনজীবী পদত্যাগ করেন।

তারপরেও নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালত পাড়ায় সেই কমিটির কার্যক্রম চলে আসছিল। পরবর্তীতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সকল জেলা কমিটি বাতিল করা হয়। যার ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কমিটিও বাতিল হয়ে গিয়েছিল।

সূত্রঃনিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin