ষড়যন্ত্র হচ্ছে চক্রান্ত হচ্ছে খুব খারাপ ভাবে হচ্ছেঃ লিপি ওসমান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি বলেন, একটা সেলাই মেশিন খুব বড় বিষয় না। কিন্তু আপনারা খেয়াল করলে দেখতে পারবেন প্রত্যেকটা বড় জিনিসই ক্ষুদ্র থেকে সৃষ্টি হয়েছে। আমি যখন নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবেন তখন সকলে আপনকে শ্রদ্ধা করবে। যারা সৎ নিয়ত থাকে আশেপাশের সবাই কিন্তু তাকে ভয় করে। সেই ভয়টা হচ্ছে শ্রদ্ধার ভয়। কিন্তু যারা পাওয়ার দেখায়, পেশী দেখায় শক্তি দেখায় তাদেরকেও সবাই ভয় পায়। কিন্তু সেই ভয়টা হচ্ছে নেয়ার ভয়। সুতরাং আপনার পরিচয় কোনটা হবে আপনি বেছে নিবেন।

মঙ্গলবার ২ ফেব্রুয়ারী সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার মিলনায়তনে নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, এই মেশিনটা একটা ছোট্ট জিনিস। আমাদের সরকার আপনাদের কাছ পর্যন্ত পৌছে দিচ্ছে। এবার আপনাদের উচিত সরকারকে সহযোগীতা করা। আপনারা নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেন সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে। একলা সরকার কিছুই করতে পারেনা যদিনা জনগন তাকে সহযোগীতা করে। সরকার উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে আপনাদের কাছে পৌছে দিচ্ছেন এগুলোর জন্য সদ্বব্যবহার হয়।

সালমা ইসলাম লিপি বলেন, আমি মানুষটা অনেক ক্ষুদ্র আমার পক্ষে নারায়ণগঞ্জের সকল মানুষের জন্য করা সম্ভব না। করোনাকালীন সময় আমাকে যারাই এসএমএস করে তাদের সমস্যার কথা জানিয়েছেন আমি ক্ষুদ্র করে হলেও প্রত্যেকটা মানুষকে সহযোগীতা করতে পেরেছি। এটা আমার জীবনে একটা স্বার্থকতা। আমি কোন পদ পদবীর জন্য এটা করিনি। পদ পদবী না থাকলেও আমি এটা করতাম। আমি মানুষের জন্য করেছি দায়বদ্ধতার জন্য করেছি।

তিনি বলেন, আমি আগেও শুনেছি এখনো শুনছি। আঘাত আসতে পারে। ষড়যন্ত্র হচ্ছে চক্রান্ত হচ্ছে খুব খারাপ ভাবে হচ্ছে। জনগন তখন টের পান যখন আঘাতটা কালো ঢেউয়ের মত এসে আছড়ে পড়ে। এর আগে টের পায়না। আমিও সেই জনগনের একজন। শুনতে পাই চক্রান্ত হচ্ছে। কোথায় যে কি হচ্ছে? এখন মনে হয় ভয় পেয়ে লাভ নাই। এখন মনে করি যই ষড়যন্ত্র হোক চক্রান্ত হোক আমি যদি মনে করি আমি সৎ থেকে আল্লাহর কাছে প্রার্থনাটা শক্তভাবে ধরে রাখি আল্লাহ আমাকে রক্ষা করবেন, প্রধানমন্ত্রীকে রক্ষা করবেন, দেশকে রক্ষা করবেন। আল্লাহ গরীব মানুষের দোয়া ফেলে দিবেন না। প্রায়ই আমাদের নামে আজেবাজে কথা বলা হয়। গালাগালি করে অপপ্রচার করে মিথ্যাচার করে। আগে খারাপ লাগতো। এখানে সাংবাদিক ভাইয়েরা আছেন আমি তাদের অসম্ভব শ্রদ্ধা করি। করোনার সময় সাংবাদিকদের দায়িত্ববোধ দেখে আমি তাদের স্যালুট জানাই। এরপর কিছু কিছু মানুষ আছে মিথ্যাচার করেই চলে। আগে রাগ লাগতো এসমস্ত মিথ্যাচার মানতে হবে কেন। কিন্তু এখন রাগ লাগে না। এখন হাসি পায়, বরং তাদের প্রতি আমার দয়া হয়। কারণ পবিত্র কোরআনে আছে যদি কেউ সন্দেহ করেও কারো বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে তাহলে যার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে তার পাপের ভাগও ওই মিথ্যাচারকারীর। তাই তারা তাদের কাজ করুক আমরা আমাদের কাজ করবো। আমার নিয়ত যদি ঠিক থাকে তাহলে যত বড় বিপদই আসুক না কেন আল্লাহ আমাকে রক্ষা করবেন।

সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিকের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির সহ বিভিন্ন ইউনিয়নেয়র চেয়ারম্যানবৃন্দরা।

সূত্রঃ নিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin