শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর মুয়াজ্জিন গ্রেপ্তার

শেয়ার করুণ

বগুড়ার আদমদীঘিতে ১০ বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মসজিদের কিশোর মুয়াজ্জিনকে (১৭) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সান্তাহার নতুন বাজারের একটি জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বাদী হয়ে আদমদীঘি থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ওই কিশোর গত তিন বছর ধরে সান্তাহারের একটি মাদ্রাসায় পড়াশুনা করেন এবং সান্তাহার নতুন বাজারের একটি জামে মসজিদে মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

জানা গেছে, ওই এলাকার ১৫-২০ জন শিশু-কিশোর ওই মসজিদের হুজুরের কাছে আরবি পড়ে। প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে তারা আরবি পড়ার জন্য মসজিদে যায়।

তবে হুজুর না থাকায় মসজিদের মুয়াজ্জিন তাদেরকে আরবি পড়ায় ও পড়া শেষে ১০ বছরের এক শিশুকে কৌশলে আটকে রাখে।

অন্য সব ছাত্র-ছাত্রী মসজিদ থেকে চলে গেলে সে ওই শিশুকে মসজিদের ছাদে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই শিশু কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি গিয়ে তার বাবাকে এ ঘটনা জানায়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে আদমদীঘি থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্তকে রাতেই গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম রেজা জানান, ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা করার পর মূল আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। সেইসাথে ভুক্তভোগী শিশুকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুণ