শাহ আলমের গুণকীর্ত্তণ, আজাদ খেলেন তারেকের ধমক

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

শুধুমাত্র অন্যের দালালী করায় নিজ দলের নেতাকর্মীদের কাছ থেকে ধমক আর গালি হজম করাটা যেন এখন নিয়তিতেই পরিনত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ও ফতুল্লা থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক এড. আবুল কালাম আজাদের।

যার ব্যাতিক্রম ঘটেনি এবারও। বিএনপি থেকে পদত্যাগকৃত ফতুল্লা থানা বিএনপির পল্টিবাজ সভাপতি শিল্পপতি শাহআলমের পক্ষে দালালী করতে গিয়ে এবার দালাল খ্যাত এই আজাদ বিশ^াসকে চরম ধমক হজম করতে হয়েছে খোদ দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে। যা শুনে হতবাক হয়ে যান সভাস্থলে উপস্থিত জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির অন্যান্য সদস্যরা।

গত ২০ জানুয়ারী বুধবার বিকেলে রাজধানী ঢাকার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির প্রথম মতবিনিময় সভায় এমনই ঘটনা ঘটেছে।

সভা সূত্রে জানাগেছে, এই সভায় নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক তৈমূর আলম খন্দকার ও সদস্য সচিব অধ্যাপক মামুন মাহমুদসহ ৪১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটির উপস্থিত সকল সদস্যই তারেক রহমানের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলা সুযোগ পেয়েছিলেন।

আর সেই সাথে আজাদ বিশ্বাসও বক্তব্য দেয়ার সুযোগ পান। তার বক্তব্যের একপর্যায়ে একাধিক নেতা নারায়ণগঞ্জ জেলার একাধিক থানায় গ্রুপিং আছে বলে মন্তব্য করলে তাৎক্ষনিক আজাদ বিশ্বাস তাদের বিরোধীতা করে বলেন- শাহআলমের নেতৃত্বে ফতুল্লা থানা বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ আছে।

এসময় ভিডিও করফারেন্সে সংযুক্ত থাকা তারেক রহমান আজাদ বিশ্বাসকে ধমক দিয়ে বলেন, ‘উনি (শাহআলম) তো বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেছেন। তাহলে উনার নেতৃত্বে কিভাবে ফতুল্লা বিএনপি ঐক্যবদ্ধ থাকে?’। প্রতিউত্তরে আজাদ বিশ্বাস বলেন- ‘শাহআলম সাহেব জেলা ও থানা বিএনপি থেকে পদত্যাগ করলেও নির্র্বাহী কমিটিতে আছেন।’ তখন আজাদ বিশ্বাসের এমন কথা শুনে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন তারেক রহমান।

তবে ধমকের বিষয়টি অস্বীকার করে আজাদ বিশ্বাস লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘তারেক রহমান আমাকে ধমক দেয় নাই। তিনি অত্যন্ত সাবলীল ভাষায় সকলের সাথে কথা বলেছেন, আমাদেও পরামর্শ দিয়েছেন।’

তিনি আবার দাবীও করেন, ‘আমাদের নেতা শাহআলম সাহেবই। তিনি জেলা ও থানা কমিটি থেকে পদত্যাগ করলেও নির্বাহী কমিটিতে আছেন।’

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin