রূপগঞ্জে অগ্নিদগ্ধ ভবনে অর্ধগলিত হাড় পাওয়ার দাবি

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাসেম ফুড লিমিটেডের পুড়ে যাওয়া ছয়তলা ভবনের চারতলায় বেশকিছু অর্ধগলিত হাড় পড়ে আছে বলে দাবি করেছে নাগরিক তদন্ত কমিটি।

শনিবার (১৭ জুলাই) দুপুরে রূপগঞ্জ উপজেলার কর্ণগোপ এলাকায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ভবন পরিদর্শনে গিয়ে ওই অর্ধগলিত হাড়গুলো দেখতে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন কমিটির সদস্যরা। তাদের ধারণা, ওই হাড়গুলো অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে মারা যাওয়া কোনো নারী শ্রমিকের দেহের অংশ বিশেষ।এসময় নাগরিক তদন্ত দলের সদস্য ও গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার বলেন, আমরা ছয়তলা ভবনটির চারতলা ফ্লোরের দক্ষিণ পূর্বকোনের একটি পোড়া স্তূপে হাড়গুলো পড়ে থাকতে দেখেছি। হাড়গুলো একটি পাজামা দিয়ে মোড়ানো। ধারণা করা হচ্ছে, এটা কোন নারী শ্রমিকের কোমরের অংশ। চারতলার পুরো ফ্লোরটিতে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এই দুর্গন্ধ রানা প্লাজা তাজরিনের ঘটনার পরও আমরা পেয়েছিলাম।

এ হাড়গুলো এখনও কেন পড়ে আছে, আসলেই মৃত্যুর সংখ্যা কত, এ বিষয়গুলো আরও তদন্ত করতে হবে।এর আগে, শনিবার বেলা এগারোটায় পুড়ে যাওয়া ভবনটি পরিদর্শনে যান নাগরিক তদন্ত কমিটির প্রতিনিধি দল। তারা ভবনটির চতুর্থ তলা পর্যন্ত গিয়ে বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখেন।এ বিষয়ে অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ বলেন, হাড়গুলো আমরা দেখেছি। পুরো ভবনেই বিভিন্ন মালামালের পোড়া স্তূপ আছে।

আমরা তদন্তের সময় এই বিষয়গুলো বিবেচনা করবো।পরিদর্শনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব এডভোকেট মাহবুবুর রহমান ইসমাইল, ডা. মো. হারুন-রশিদ, প্রকৌশলী মোশাররফ হোসেন, অধ্যাপক তানজীম উদ্দিন খান, গবেষক ও সাংবাদিক প্রিসিলা রাজ ও মাহা মির্জা, শিল্পী ও সংগঠক বীথি ঘোষ, বাংলাদেশ শ্রম ইন্সটিটিউটের ট্রাস্টি গোলাম মুর্শেদ, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান-তাসলিমা আখতার লিমা, গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের সভাপতি শবনম হাফিজ, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম সবুজ, এবং গবেষক ও মানবাধিকার কর্মী রেজাউর রহমান লেনিন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin