যে কারণে নালায় নেমেছিলেন মেয়র আতিক

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

৩০০ মিটার লম্বা একটি নালার নির্মাণকাজ চলছে। নির্মাণ করা নালাটির স্ল্যাবের কিছু ঢাকনা খোলা ছিল। এমনই একটি খোলা স্ল্যাবের জায়গা দিয়ে নালায় নামলেন মেয়র। মাথা নিচু করে নালার ভেতরটা দেখলেন। সড়কটির বিপরীত পাশেও নির্মাণাধীন নালায় ঠিক একইভাবে নামেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বছিলা এলাকার স্বপ্নধারা হাউজিং মূল সড়ক (বছিলা ৪০ ফুট সড়ক) এলাকায় এভাবেই নালায় নেমেছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। লাউতলা খালের উচ্ছেদ অভিযান পরিদর্শনের জন্য মেয়র সেখানে গিয়েছিলেন।

মেয়র আতিকুল ইসলামের নালায় নামার স্থিরচিত্র অনেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে (ফেসবুকে) শেয়ার করেছেন। বিষয়টি অনেকেই ইতিবাচকভাবে দেখছেন। কেউ কেউ আবার কাজটি নেতিবাচকভাবে নিয়ে সমালোচনা করছেন।

তবে ঠিক কী কারণে মেয়র হঠাৎ নালায় নেমেছিলেন, তা জানতে ঢাকা উত্তর সিটির মেয়রের দপ্তরে যোগাযোগ করে প্রথম আলো। এ বিষয়ে মেয়র আতিকুল ইসলামের সহকারী একান্ত সচিব ফরিদ উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, মেয়র যে নালায় নেমেছেন, সেটি নতুন নির্মাণ করা হয়েছে। নালা নির্মাণের কাজটি সঠিকভাবে হয়েছে কি না, তা দেখতে ও যাচাই করতেই তিনি নালায় নেমেছিলেন। তিনি মূলত নতুন নির্মিত নালাটি সরাসরি পর্যবেক্ষণ করেছেন।

মেয়র আতিকুল ইসলামের নালায় নামার কিছু স্থিরচিত্র ফেসবুকে দিয়ে একজন লিখেছেন, ‘নিন্দুকেরা বলবে শো-অফ। হ্যাঁ মানলাম শো-অফ। কিন্তু এই শো-অফ করার জন্য হলেও তো ড্রেনে (নালা) নামতে হয়েছে। বাংলাদেশের আর কোনো মেয়র এভাবে ড্রেনে নেমেছেন কি না, আমার জানা নেই।’

নালায় নেমে নিচু হয়ে ভেতরটা দেখছেন এমন একটি স্থিরচিত্র শেয়ার করে আরেকজন আবার লিখেছেন, ‘এই ছবি এটাও প্রমাণ করে যে সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলীরা উন্নয়নকাজের তদারকি ঠিকমতো করেন না। মেয়র তাঁদের লাইনে আনতে পারেননি, নতুবা তাঁদের ওপর তাঁর বিশ্বাস নেই। এখন যাদের নামার দরকার ছিল, তারা নামেনি।’

গত রোববার থেকে লাউতলা খালের দখল ও ভরাট হওয়া অংশ উদ্ধারে উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্তৃপক্ষ। অভিযানের তৃতীয় দিনে গতকাল দুপুরের পর খালের জায়গায় নির্মাণ করা বিট পুলিশিং কার্যক্রমের একটি কার্যালয়, আবাসন প্রতিষ্ঠানের একটি অবৈধ লোহার ফটক ও কার্যালয় এবং একটি অবৈধ আধা পাকা মার্কেটের দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। এর একপর্যায়েই মেয়র হঠাৎ নালায় নেমে যান।

সূত্রঃ প্রথম আলো

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin