যেভাবে ৭০-৮০ রাকাত নফল নামাজ পড়েন শামীম ওসমান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান এক বক্তব্যে বলেছিলেন, তিনি দৈনিক ৭০-৮০ রাকাত নফল নামাজ পড়েন৷ এই বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হলে বিভিন্ন আলেম-ওলামা পর্যায়ে বিষয়টির সমালোচনা হয়৷ এদিকে গত মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সিলেট মাজার জিয়ারতে গিয়ে স্থানীয় লোকজন ও গণমাধ্যকর্মীদের সামনেও এই বিষয়ে প্রশ্নের সম্মুখীন হন শামীম ওসমান৷ পরে দৈনিক ৭০-৮০ রাকাত অতিরিক্ত নফল নামাজ পড়ার ব্যাখ্যা দেন আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এই সাংসদ৷

এক প্রশ্নের জবাবে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি নফল এবাদতে বিশ্বাস করি। আমি নামাজটা পড়ার চেষ্টা করি। গাড়িতে বসে পড়ি। যোহরের পরে পড়ি, মাগরিব, এশা, তাহাজ্জুদের পরে পড়ি। আমি ৭০ নাকি ৮০ রাকাত নামাজ পড়ি জানি না। তবে ৭০-৮০ রাকাতের নিচে পড়ি না।’

এ সময় সিলেট মাজারের স্থানীয় লোকজন ও গণমাধ্যমকর্মীরা শামীম ওসমানকে ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করেন৷ হেফাজতে ইসলামের বর্তমান নেতৃত্বে তার অবস্থান সম্পর্কে জানতে চান৷ শামীম ওসমান এ বিষয়ে কথা বলেন৷ সাংসদ বলেন, ‘মানুষ সমস্যায় পড়লে সেজদায় যাওয়া উচিত৷ নামাজের ওয়াক্ত না হলে নফল পড়তে পারে৷ যখন বান্দা হাত তুলে কাঁদতে চায় তখন আল্লাহ ওই হাত ফিরিয়ে দিতে লজ্জাবোধ করে। মারামারি না কইরা ভালো কইরা দোয়া করো যাতে করোনা থেকে বাঁচি।’

উল্লেখ্য, গত ২৬ ডিসেম্বর বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরের নাভানা সিটি বালুর মাঠে অনুষ্ঠিত এক কর্মীসভায় শামীম ওসমান দৈনিক ৭০-৮০ রাকাত অতিরিক্ত নফল নামাজ পড়েন জানিয়ে বক্তব্য রাখেন৷ একই কথা পরবর্তীতে তিনি ফতুল্লা ও বন্দরে অনুষ্ঠিত কর্মীসভাতেও বলেন৷ সাম্প্রতিক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ইস্যুতে আলেম-ওলামাদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি অতিরিক্ত নফল নামাজ আদায়ের কথা বলেন৷

সূত্রঃ প্রেস নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin