যুক্তরাষ্ট্রে ৬ মাসের মধ্যে রেকর্ড শনাক্ত

শেয়ার করুণ

যুক্তরাষ্ট্রে গেল ছয় মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবার (৪ আগস্ট) দেশটিতে এক লাখের বেশি লোকের করোনা পজিটিভ এসেছে।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের টালি বলছে, করোনার টিকা নেওয়া কম হয়েছে এমন এলাকাগুলোতে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট আগ্রাসী হয়ে উঠেছে। যুক্তরাষ্ট্রে গত সাতদিন ধরে গড়ে ৯৪ হাজার ৮১৯ জন করে মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন।এক মাসেরও কম সময়ের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা পাঁচ গুণ বেড়েছে। বুধবার রয়টার্সের উপাত্ত সেই কথাই বলছে।

গত সাত দিনের গড় করোনা সংক্রমণ বলে দিচ্ছে, কীভাবে মহামারি সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ছে।বুধবার মার্কিন শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফাউসি বলেন, আসছে সপ্তাহগুলোতে দিনে করোনা সংক্রমণ দ্বিগুণ বেড়ে দুই লাখ হয়ে যেতে পারে। যদি অতিমাত্রায় সংক্রমণে সক্ষম আরেকটি ধরণ এসে পড়ে, তবে পরিস্থিতি মারাত্মকভাবে খারাপ হয়ে যাবে।তিনি বলেন, যারা ভুলভশত টিকা নিতে পারেননি, তারা হয়ত ভেবেছেন, এটা তাদের ব্যাপার। তা কিন্তু না। এটি সবার ব্যাপার।মার্কিন রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র জানিয়েছে, করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট প্রথম ভারতে শনাক্ত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন করোনা সংক্রমণের ৮৩ শতাংশের জন্য দায়ী এই ধরন।

দেশটিতে অনেক রাজ্যে টিকাদানের হার বেশি হলেও কোথাও কোথাও টিকা নিতে অনীহাও দেখা যাচ্ছে। ভারমন্টের বাসিন্দাদের ৭৬ শতাংশ এরই মধ্যে টিকার প্রথম ডোজ নিয়ে নিলেও মিসিসিপির মতো কোনো কোনো রাজ্যে এই হার ৪০ শতাংশেরও কম।ডেমোক্র্যাটদের তুলনায় রিপাবলিকান অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে টিকাদানের হার কম বলে বিভিন্ন জনমত জরিপে দেখা গেছে।

হোয়াইট হাউসের কোভিড-১৯ রেসপন্স টিম জানিয়েছে, গুরুতর রোগীদের প্রায় ৯৭ শতাংশই ‍টিকা না নেওয়াদের দলের।কেবল শনাক্ত রোগীই নয়, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডে মৃত্যু সংখ্যাও বাড়ছে। দেশটিতে এখন প্রতিদিন গড়ে করোনাভাইরাসে ৩৭৭ জনের মৃত্যু হচ্ছে, যা আগের সপ্তাহের তুলনায় ৩৩ শতাংশ বেশি।মহামারি করোনার ধাক্কা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে পুরো বিশ্ব। করোনার নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্টের কাছে বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোও ধরাশায়ী। পৃথিবীজুড়ে টিকা কার্যক্রম চললেও থামছে না সংক্রমণের গতি।ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ও সংক্রমণ বেড়েছে। এ সময় মারা গেছেন আরও ১০ হাজার ১০৫ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৩১ হাজার ২৯৯ জন। আর গতকাল বুধবার (৪ আগস্ট) মারা গেছেন আর ৯ হাজার ৯৩৯ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ১৫ হাজার ৫৪৪ জন।

এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু ৪২ লাখ ৬৯ হাজার ৩০ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২০ কোটি ৯৩ লাখ ৫ হাজার ৬৮৫ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৮ কোটি ৯ লাখ ৫১ হাজার ৫০৭ জন।করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ৬১ লাখ ৭৬ হাজার ৪৭১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৩১ হাজার ২৯৯ জনের।আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত মোট সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ১৮ লাখ ১০ হাজার ৭৮২ জন এবং এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ২৬ হাজার ৩২১ জনের।আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় দুই কোটি ২৬ হাজার ৫৩৩ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৫৯ হাজার ৭১৫ জনের।

নিউজটি শেয়ার করুণ