যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া র‍্যাবের উপর নিষেধাজ্ঞা একটি জঘন্য পদক্ষেপঃ প্রধানমন্ত্রী

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) উপর যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া নিষেধাজ্ঞাকে একটি জঘন্য পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। র‍্যাবের ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি বলেন, “বাংলাদেশের সাজাপ্রাপ্ত অপরাধীদের আমেরিকা আশ্রয় দেয়। সেক্ষেত্রে আমেরিকার এই পদক্ষেপ বেমানান।”

প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে আরো বলেন, “বিনা কারণে যারা র‍্যাবের উপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে, তাদের দেশে পুলিশ অপরাধ করলে কোন শাস্তি দেয়া হয় না। আমেরিকায় প্রকাশ্যে মানুষকে হত্যা করা হয়”।

উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে র‍্যাবের সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠান হিসেবে র‍্যাবের বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বিভিন্ন দেশের ১৫ ব্যক্তি ও ১০ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে মার্কিন অর্থ দপ্তর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এর মধ্যে সাতজন বাংলাদেশের।

অন্যদিকে, র‍্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সংস্থাটির প্রংশসা করে বলেন, “মাদক নিয়ন্ত্রণ, সুন্দরবন দস্যুমুক্ত করার ক্ষেত্রে র র‍্যাবের ভুমিকা প্রশংসার দাবিদার”। র‍্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলাবাহিনী কর্মতৎপর থাকায় হলি আর্টিজানের মত আর কোন ঘটনা দেশে ঘটেনি বলেও দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী।

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন বা র‍্যাব বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাস দমনের উদ্দেশ্যে গঠিত চৌকস বাহিনী। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত এই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ২০০৪ সালে তাদের কার্যক্রম শুরু করে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin