মেয়র আইভীর কাছে জবাব চাইলেন শাহ নিজাম!

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

সম্প্রতি সন্ত্রাস নির্মুল ত্বকী মঞ্চের আহবায়ক রাফিউর রাব্বী ১৯৭৫ সালের ঘটনার জন্য তৎকালীন আওয়ামীলীগকে দায়ী করেছেন। মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহ নিজাম রাফিউর রাব্বীর এই বক্তব্যের প্রতিবাদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট দেন।

তিনি বর্তমান সিটি মেয়র আইভীর কাছে প্রশ্ন রাখেন রাফিউর রাব্বীর ব্যপারে তার অবস্থান সম্পর্কে। ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে শাহ নিজাম বলেন, আমাদের বর্তমান মেয়রের প্রিয় একজন মানুষ রাফিউর রাব্বী। কিছুদিন আগে রাব্বীর দেয়া বক্তব্যের কথা উল্লেখ করে শাহ নিজাম বলেন, ১৯৭৫ সালের হত্যাকান্ডের জন্য রাব্বী যখন আওয়ামী লীগেকে দায়ী করে বক্তব্য দিয়েছে এখন আমাদের মেয়র এই ব্যপারে কী বলবেন?

তিনি কী রাব্বীর কথাকে সমর্থন করবেন নাকি বলবেন রাব্বী আমাদের কেউ নয়? একজন তৃনমুল আওয়ামী লীগের কর্মী হিসেবে তিনি মেয়র আইভীর কাছে রফিউর রাব্বীর ব্যাপারে অবস্থান জানতে চান। শাহ নিজাম এই ব্যপারে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দৃষ্টি আকর্ষন করেন এবং তাদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় থাকবেন বলে জানান। মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের স্ট্যাটাস পাঠকদের সুবিধার্থে হুবুহু তুলে ধরা হলোঃ “”রফিউর রাব্বি,,আমাদের মেয়রের খুব প্রিয় একজন মানুষ।

উনি বলতে চেস্টা করেছেন ১৫ আগস্ট আওয়ামী লীগ এর সৃস্টি। আমাদের মেয়র কি উনার সুরে সুর মিলিয়ে বলবেন ১৫ ই আগস্ট আওয়ামী লীগ এর সৃষ্টি নাকি বলবেন রফিউর রাব্বির আমার এখানে জায়গা নেই??? আমরা যারা তৃনমুলের কর্মী, আমরা অপেক্ষায় থাকলাম মেয়রের বক্তব্য শুনার জন্য। কারন কিছুদিন পূর্বেও এই রাব্বি এবং আওয়ামী লীগ এর নামধারী মেয়র একি মঞ্চে একি সুরে কথা বলেছেন।

কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ও পাশাপাশি সিন্ধান্ত চাচ্ছি মোশতাক মার্কা আওয়ামিলীগ এর ব্যাপারে কি সিদ্ধান্ত নিবেন?? এ লিখাটা আমি কাউকে খুশি করার জন্য কিংবা পক্ষ হয়ে লিখিনি,,আমার জীবনের ৩৬ বছর রাজনীতির কর্মীর অধিকার থেকে লিখা।”” উল্লেখ্য গত ২৩ আগস্ট রবিবার বিকালে নগরীর আলী আহমদ চুনকা পাঠাগারের সামনে অধ্যাপক মোজাফফর আহমদের স্মরণ সভায় রাফিউর রাব্বী ১৯৭৫ সালের হত্যাকান্ডের জন্য আওয়ামীলীগকে দায়ী করেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin