মায়াদ্বীপ স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে হামলার প্রতিবাদ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের অবৈতনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘মায়াদ্বীপ শিশু পাঠশালা’র প্রধান শিক্ষকের বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এই সময় হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান মানববন্ধনে উপস্থিত সংস্কৃতি কর্মী, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতারা।

সংগঠনের সহসভাপতি ধীমান সাহা জুয়েলের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, বাসদের সমন্বয়ক নিখিল দাস, ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরীফউদ্দিন সবুজ, সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি জাহিদুল হক দিপু, প্রদীপ ঘোষ বাবু, সমগীতের সাবেক সভাপতি অমল আকাশ, নারী সংহতির সম্পাদক পপি রানী সরকার প্রমুখ। মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন ‘মায়াদ্বীপ শিশু পাঠশালা’র প্রতিষ্ঠাতা কবি শাহেদ কায়েস। সঞ্চালনা করেন সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদ।

বক্তারা বলেন, সোনারগাঁয়ের মায়াদ্বীপ পাঠশালাটি প্রতিষ্ঠা করেছেন কবি শাহেদ কায়েস। এটি সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য অবৈতনিক স্কুল। শিক্ষার আলো শিশুদের পর্যন্ত পৌঁছালে ওই এলাকার বালু সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ীদের জন্য হুমকি। এই কারণে বারবার এই পাঠশালাটি বন্ধের অপপ্রয়াস চালিয়েছে সন্ত্রাসী মহল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২২ জানুয়ারি পাঠশালার প্রধান শিক্ষক মরিয়ম আক্তার পাখির বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার শিশু সন্তান, ভাইদের আহত করেছে।

তারা আরও বলেন, এই ধরনের ঘটনা ক্ষমতাসীনরাই ঘটায়। কেননা তারা নিজেকে সবকিছুর উর্ধ্বে মনে করেন। এক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। শিক্ষকের বাড়িতে হামলার সাথে জড়িত আবুল হাশেম চিহ্নিত হুন্ডি ও মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে। সে ক্ষমতাসীন দলেরও নেতা। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাশেম তার সন্ত্রাসী বাহিনীকে নিয়ে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। তবে পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারছে না। হামলার ঘটনার সাথে জড়িত সকলকে গ্রেফতারের দাবি জানান বক্তারা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin