মাসদাইর বাড়ৈভোগের চাঞ্চল্যকর হত্যা রহস্য উদঘাটন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলার ফতুল্লার মাসদাইর বাড়ৈভোগের চাঞ্চল্যকর এক নারী হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আজ খুনের শিকার তানজিলার স্বামীর স্বীকারোক্তি মত কাশিপুর আদর্শ নগরের এক ডোবায় অভিযান চালায় পিবিআই।

হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ পিবিআই উপ পরিদর্শক (এসআই) শাকিল হোসেন বলেন, রাসেল তার স্ত্রীর দেহ কয়েক টুকরো করে বাড়ির পাশের ওই ডোবায় ফেলে দেয়। তখন রাসেল তার বাড়িওয়ালা সিরাজ খানকে জানান তার স্ত্রী তানজিনা করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে মারা গেছে। এরপর সে বাসা ছেড়ে চলে যায়। তিনি আরো জানান, রংপুর থেকে রাসেলকে গ্রেফতারের পর জানাযায় মাথাটি যে ডোবায় পাওয়াগেছে সেখানেই দেহ কয়েক টুকরো করে ফেলে দেয়া হয়েছে।

পিবিআই এর নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম জানান, রাসেলের সঙ্গে তানজিনার প্রেম ছিল। পরে তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস শুরু করেন। কিন্তু পরকীয়ার কারণে তাদের সংসারে কলহ দেখা দেয়। ২০২১ সালের ২৯ মার্চ তানজিনাকে ঘরে থাকা বটি দিয়ে গলা কেটে ও শরীরের অংশগুলো টুকরো করে ফ্রিজে রেখে দেয় রাসেল। ৪ এপ্রিল বস্তাবন্দী করে সেগুলোও পাশের ডোবায় ফেলে দেয়। ঘটনার পর হত্যায় ব্যবহৃত বটি ও অন্যান্য সামগ্রী নিয়ে ওই বাড়ি থেকে চলে যান রাসেল।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin