মাসদাইরে ২ মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে বলৎকারের অভিযোগে শিক্ষক আটক

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

সদর উপজেলার ফতুল্লার মাসদাইর বাড়ৈভোগে দুই ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে জাহিদুল ইসলাম (৩১) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

গতকাল সোমবার (১১ অক্টোবর) ভোর রাতে তাকে মাসদাইর বাড়ৈভোগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

বলৎকারের শিকার ছাত্রদের মধ্যে হাফেজ বিভাগে পড়ুয়া এক ছাত্রের বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তারই প্রেক্ষিতে এই মাদ্রাসা শিক্ষক কে আটক করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শিক্ষক সোনারগাঁও থানার হরিহরদী গ্রামের শফিকুর রহমানের পুত্র ও মাসদাইর বাড়ৈভোগস্থ বাইতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার সুপার।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বাদীর ১০ বছর বয়সী ছেলে ও বাদীর সঙ্গে থানায় আসা অপর এক সঙ্গীর নয় বছর বয়সী ছেলে বাইতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসায় হেফজ শাখায় পড়ালেখা করে। অভিযুক্ত মাওলানা মো. জাহিদুল ইসলাম প্রায় সময় তার কক্ষে ডেকে নিয়ে দুই ছাত্রকে দিয়ে হাত-পা টিপাতো। হাত-পা টিপানোর কথা বলে নয় বছর বয়সী ছাত্রকে একাধিকবার বলৎকার করে। পরবর্তীতে সর্বশেষ ৭ অক্টোবর বাদীর ছেলেকে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করে। এর আগে ৯ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫ টার দিকে বাদীর ছেলের সহপাঠী অপর ছাত্রকে একই কায়দায় বলাৎকার করে।

এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, দুই মাদ্রাসা ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা সুপারকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বলৎকারের শিকার মাদ্রাসার ছাত্রদেরকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin