মাসদাইরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর কিউ-আর কার্ড বিতরণ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

খাদ্য অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত ‘খাদ্যবান্ধব কর্মসূচী’ কার্যক্রমে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলায় মাসিক ৩০ কেজি চাল ১০ টাকা দরে প্রত্যেক তালিকাভুক্ত পরিবারের মাঝে বিক্রি করা শুরু হয়েছে।

২৮ সেপ্টেম্বর সোমবার, মাসদাইর ৮নং ওয়ার্ডে ,সুরুজ্জামাল সাহেবের বাসায় উক্ত ওয়ার্ড বাসীর মাঝে এই কার্ড বিতরণ করা হয় । ‘সরকারি সহায়তা ব্যবস্থাপনা সিস্টেম’ অ্যাপস এর মাধ্যমে সদর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে সর্বমোট ১৩,৯৮২ জন উপকারভোগীর মাঝে ২৪ জন ডিলারের মাধ্যমে এ কার্যক্রম চলবে।

উক্ত অ্যাপস এর মাধ্যমে ডিলার স্মার্টফোন ব্যবহার করে উপকারভোগীর কার্ড এর কিউ-আর কোড স্ক্যান করার মাধ্যমে উপকারভোগীর মাঝে চাল বিক্রি ডিজিটাল পদ্ধতিতে সম্পন্ন করবে এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেই তথ্য সার্ভারে চলে যাবে।

এই সময় এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার ও প্যানেল চেয়ারম্যান আতাউর রহমান প্রধান বলেন , সরকারি সহায়তা ব্যবস্থাপনা সিস্টেম’ অ্যাপস ব্যবহারের মাধ্যমে সরকারি সহায়তা ডিজিটাল উপায়ে অভাবী মানুষের কাছে পৌঁছাবে যার মাধ্যমে সরকারি সহায়তা বিতরণে বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতি ঠেকানো যাবে। তাছাড়া এ পদ্ধতিতে তালিকাভুক্ত ব্যক্তির বাইরে অন্য কেউ কিউ-আর কার্ড ব্যতীত চাল কিনতে পারবে না এবং ডিলাররাও একজন উপকারভোগীর জন্য বরাদ্দকৃত চাল আরেকজন উপকারভোগীর কাছে বিক্রি করতে পারবেন না।

তিনি আরও বলেন, সদর উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার, ইউপি সচিব, ইউডিসি উদ্যোক্তা সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে অত্যন্ত অল্প সময়ের মধ্যে কিউ-আর কার্ড এবং ‘সরকারি সহায়তা ব্যবস্থাপনা সিস্টেম’ ব্যবহার করে খাদ্য অধিদপ্তরের ‘খাদ্যবান্ধব কর্মসূচী’ চালু হওয়ার ফলে বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা ও অনিয়ম ইতি ঘটবে।

জানা যায়, করোনা সংকটকালীন সময়ে গত ২৩ মে সদর উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার, ইউপি সচিব, ইউডিসি উদ্যোক্তা সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে অত্যন্ত অল্প সময়ের মধ্যে কিউ-আর কার্ড এবং ‘সরকারি সহায়তা ব্যবস্থাপনা সিস্টেম’ ব্যবহারের মাধ্যমে খাদ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক পরিচালিত ‘বিশেষ ওএমএস’ কার্যক্রম উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের সর্বমোট ৫,০০০ পরিবারের মাঝে ৪ জন ডিলারের মাধ্যমে মাসিক ২০ কেজি চাল ১০ টাকা দরে বিক্রয়ের উদ্যোগ গৃহীত হয়েছিল।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin