মাসদাইরের কিশোর গ্যাং লিডার ফেরদৌস ও হ্নদয়ের খোঁজে পুলিশ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin


নারায়ানগঞ্জ বুলেটিনঃ ফতুল্লার মাসদাইর বাড়ৈইভোগ ফারিহা গার্মেন্টস এলাকায় মাদক বিক্রী‌তে বাঁধা দেওয়াতে কিশোর গ্যাংয়ের ফেরদৌসের নেতৃত্বে হৃদয় হামলা চালিয়ে বুলু ও রাব্বি নামের দুই যুবককে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে।
গত ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে বাড়ৈইভোগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আরোও ৫ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। সে সময় তাদেরকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সেলিম সরদার বুলু (৪০) কে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিলো।


আহত সেলিম সরদার বুলু (৪০) বাড়ৈভোগ এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে, রাব্বি সরদার (২২) এই এলাকার আফজাল সরদারের ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের ফেরদৌস- হৃদয়সহ একটি গ্রুপ এই এলাকায় মাদক সেবন ও বিক্রী করে আসছিলো। তাদের ভয়ে অনেকেই টু শব্দ করার সাহস পায় না। তাদেরকে এই এলাকায় মাদক সেবন ও বিক্রি না করার জন্য বলে বুলু ও রাব্বি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কিশোর গ্যাংয়ের ফেরদৌসের নেতৃত্বে ২৫-৩০ জনের একটি দল রামদা, চাপাতি, লোহার রড দিয়ে কুপিয়ে জখম ও পিটিয়ে আহত করে। আহতদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে পাঠানো হয়। এবিষয়ে আহতদের পক্ষে থেকে বুলুর বড় ভাই মোঃ কবির সরদার (৫০) বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন, মামলায় ফেরদৌস–হৃদয়কে প্রধান আসামী করা হয় এছাড়া আরো অজ্ঞাত কয়েকজনের নাম মামলায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়।


এদিকে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আরো অনেক অভিযোগ আগে থেকে আমাদের কাছে ছিল এই ঘটনার পর আমরা এই চক্রটির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি । আসামীদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি আরো বলেন আশাকরি অতি শ্রীঘই এসব অপরাধীদেরকে আমরা আইনের হেফাজতে নিয়ে আসতে পারবো।।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin