মালয়েশিয়া নেওয়ার কথা বলে সমুদ্রে ঘুরিয়ে নামানো হয় চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার সমুদ্র উপকূল থেকে তিন দালালসহ ১০ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। আটক রোহিঙ্গাদের মধ্যে সাতজন নারী ও তিন শিশু।

তাদের মালয়েশিয়ায় নেওয়ার কথা বলে সমুদ্রের এদিকে–সেদিক ঘুরিয়ে মিরসরাই সমুদ্র উপকূলে নামিয়ে দেন দালালেরা।

গতকাল রোববার রাতে উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের চরশরৎ এলাকায় সমুদ্র উপকূল থেকে ওই ১০ জনকে আটক করা হয়।
আটক ব্যক্তিদের মধ্যে তিন দালাল হলেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরের বেলাল হোসেন (২৮), মো. জুয়েল (২০) ও চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার দিদারুল আলম (২১)।

এ ঘটনায় গতকাল রাতেই আটক দালালদের বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে ও প্রাপ্তবয়স্ক সাত রোহিঙ্গা নারীর বিরুদ্ধে বৈদেশিক নাগরিকতা–সম্পর্কিত আইনে (১৯৪৬) দুটি মামলা হয়েছে।

জোরারগঞ্জ থানার পুলিশ জানায়, আটক তিন দালাল নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে মালয়েশিয়া পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে রোহিঙ্গাদের কাছে থেকে ২০ হাজার করে টাকা নেন। পরে ভাসানচর থেকে তাঁদের নৌকায় তুলে সমুদ্রের এদিক–সেদিক ঘুরিয়ে ৩০ মে রাতে মিরসরাইয়ের চরশরৎ এলাকার সমুদ্র উপকূলে নামিয়ে দেন।

তখন সেখানে বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্যদের হাতে আটক হন তাঁরা। এরপর তাঁদের থানায় নেওয়া হয়।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন বলেন, আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিন দালাল মালয়েশিয়া পৌঁছানোর কথা বলে রোহিঙ্গাদের কাছে থেকে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেন।

আজ সোমবার সবাইকে আদালতে পাঠানো হয়। রোহিঙ্গাদের আটকের পর উপকূলীয় এলাকায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

সূত্র:প্রথম আলো

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin