মাটির জন্য যার টান আছে সে হবে সোনারগাঁয়ের মেয়র : মামুন ভূঁইয়া

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

সোনারগাঁয়ের আলোচিত দুই ব্যক্তি ফারিয়া নিটটেক্সের মালিক সিআইপি ফেরদৌস ভূঁইয়া মামুন এবং বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বেসরকাারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুন এক মতবিনিময় সভা করেন। সেখানে এই কথা উঠে আসে।

আগামী নির্বাচনে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ছগীর আহাম্মেদের উপর আশীর্বাদ রয়েছে সেটা প্রায় স্পষ্ট হয়ে গেল।এ সময় মেয়র প্রার্থী ছগীর আহাম্মেদ বক্তব্যে ফেরদৌস ভূঁইয়া মামুন ও মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সোনারগাঁয়ে কৃতি সন্তান দেশের অন্যতম শিল্পপতি সিআইপি ফেরদৌস ভূঁইয়া মামুন ভাইয়ের বক্তব্য স্পষ্ট যে উনি কি চান। উনি চান পৌরবাসী ভাল থাকুক। কারণ পৌরসভার মেয়র দিয়ে উনার কিছু আসবে যাবে না, উনি না চাইলেও যেই পৌরসভার মেয়র হোক না কেন, যে দেশ থেকেই এখানে মেয়র হোক না কেন যদি পৌরবাসী চায়, তাহলে উনাদেরও মামুন ভুঁইয়া সাহেবদের জিজ্ঞেস করেই করতে হবে। এটাই এখানে ট্রেডিশন। যে কারনে উনার চাওয়া হলো পৌরবাসী ভাল থাকুক।

পৌরবাসীর সেবায় ফেরদৌস ভূঁইয়া মামুনের অবদান তুলে ধরে ছগীর আহাম্মেদ আরও বলেন, সোনারগাঁও পৌরবাসী অতন্ত শান্তিপ্রিয় মানুষ। শান্তিতে বিশ্বাসী, অশান্তিতে বিশ্বাসী না। যে কারনে পৌরবাসী কাকে দিয়ে ভাল থাকবে বিবেচনা করেই বিগত দিনে যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাকেও সহায়তা মামুন ভুঁইয়া সাহেব করেছেন এবং আগামী দিনেও কাকে নিয়ে নেতৃত্ব দিলে পৌরবাসী ভাল থাকবে, শান্তিতে থাকবে এটা চিন্তা করে হয়তো পৌরবাসীকে নিয়ে তিনি একটা সিদ্ধান্তে উপনিত হবেন।

ইতোমধ্যে নাগরিক কমিটির প্রার্থী হিসেবে সেখানকার জাতীয় পার্টির এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার স্ত্রী ডালিয়া লিয়াকতের নাম ঘোষণা করেছেন বর্তমান মেয়র সাদেকুর রহমান। তিনি এও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি আগামীতে নির্বাচন করছেন না। এখানে আওয়ামী লীগ এখনো স্পষ্ট কিছু ঘোষণা দেয়নি। তাছাড়া জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের সম্প্রতি সোনারগাঁয়ে আসলেও সেখানেও তিনি স্পষ্ট ঘোষণা দিতে পারেনি। অপরদিকে সাদেকুর রহমানের চাচাতো ভাই হলেন ফেরদৌস ভূঁইয়া মামুন।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুন সকলের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, অনেকেই জানেন আমি সোনারগাঁও জি.আর ইনস্টিউিটশনের ছাত্র। আমাকে কেউ যদি জিজ্ঞেস করে আপনার বাড়ি কোথায়? তখন আমি বলি সোনারগাঁয়ে। পৃথিবীর যত বড় অনুষ্ঠানই থাকুক না কেন কেউ যদি আমাকে বলে সোনারগাঁয়ে অনুষ্ঠান আমাকে যেতে হবে, আমার সমস্ত কিছু বাদ দিয়ে আমি এখানে আসি। আমার প্রাণের টানে আসি। আমি আপনাদের যেকোন ভাল কাজে আছি, আমাকে ডাকলেই আমি ছুটে আসবো ইনশাহআল্লাহ।

মেয়র প্রার্থী ছগীর আহাম্মেদ সম্পর্কে মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, কবুল করার মালিক আল্লাহ। আল্লাহ যদি ছগীরকে দেয় তাহলে মামুন (শিল্পপতি সিআইপি মামুন ভূঁইয়া) ভাইকে দেখিয়ে দিতে হবে আমি ছগীর পৌরবাসীর সেবক। ছগীর যদি করতে পারে তাহলে আমাদের বন্ধবান্ধব এলাকাবাসী সবার সম্মান থাকবে।

মামুন ভুঁইয়া বলেন, আগামী পৌরসভা নির্বাচনে অনেকেই নির্বাচনের জন্য মাঠে নেমেছেন। অনেকেই আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন যেনো পাশে থাকি। আমি তো সবাইকে না করি না। এখন আমি আপনাদের সবাইকেই বলি আপনারা যদি চান তাহলে আপনাদের পাশে আমরা থাকবো। যদি আপনারা সবাই চান, সবার উপকার হয় তাহলে থাকবো নতুবা থাকবো না। আমরা পৌরবাসীর ভাল চাই, আমরা কোন রিটার্ন চাইনা। সেজন্য চিন্তা ভাবনা করলাম আমরা পৌরবাসীর ভাল কাজে থাকবো।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু এখানে প্রবাসী ঢুকছে, একজন হলো থানাবাসী আরেকজন হলো পৌরবাসী। ওয়ান ভোট ওয়ান ক্যান্ডিডেট, এটা কেমনে হয়? এটা দেখলাম যে পৌরবাসীর এটা খুব পেইন হচ্ছে। পৌরবাসীর পেইন হচ্ছে বিধায় ডিসিশন নিলাম সবাইকে নিয়ে বসে যদি পৌরবাসী চায় তাহলে আমরা থাকবো।

মামুন ভূঁইয়া বলেন, আমরা ব্যবসা বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকি। তারপরও আমরা মানুষের জন্য থাকবো। আল্লাহ বলেছেন আগে তুমি নামাজ পড়ো, তারপরে মানব সেবা করো। মরবো তো একদিন ঠিকি, যখনই মরি, মানব সেবা করে যদি পাই, যদি বেহেসতে যেতে পারি তাহলে সবাইকে নিয়েই গেলাম, সমস্যা নাই।

এরপর তিনি জানান আগামী ৬ নভেম্বর পৌরবাসীকে নিয়ে বসা হবে। তিনি বলেন, পৌরসাবীর অনেকের বক্তব্য আমরা শুনবো। পৌরবাসীর কথা আলোচনা সব শুনবো। পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডের প্রতিটি এলাকার লোকজন নিয়ে বসবো।

সূত্রঃ নিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin