মহামারী রুখতে টিকা যথেষ্ট নয়, সতর্কতা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ঢাকা : টিকা আবিষ্কার হলে আদৌও কি করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি মিলবে? দীর্ঘদিন ধরেই সেই প্রশ্ন নিয়ে চর্চা চলছে। তারইমধ্যে সোমবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) প্রধান টেডরোস ঘেবরেসাস জানালেন, করোনা রুখতে শুধুমাত্র টিকা যথেষ্ট নয়।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এখনও যে উপায়গুলি আছে, সেগুলির আরও পরিপূরক হবে টিকা। কিন্তু সেগুলিকে পালটে দেবে না।’ একইসঙ্গে তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে স্বাস্থ্যকর্মী, প্রবীণ মানুূষ এবং ঝুঁকিপূর্ণ মানুষকে করোনা টিকা প্রদান করা হবে। টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে তাঁদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। তার ফলে মৃতের সংখ্যা কমবে এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আরও কিছুটা মজবুত হবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান।

টিকা আবিষ্কার হলেও সতর্কতায় কোনও ফাঁক রাখা যাবে না বলে সতর্ক করেছেন ঘেবরেসাস। তিনি বলেন, ‘তারপরও সংক্রমণের যথেষ্ট সুযোগ থাকবে ভাইরাসের। নজরদারি চালিয়ে যেতে হবে। মানুষকে তারপরও পরীক্ষা করতে হবে, নিভৃতবাসে থাকতে হবে, চিকিৎসা করতে হবে, (করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা মানুষদেরও) খুঁজে বের করতে হবে। মানুষের দেখভাল করতে হবে।’

ওয়ার্ল্ডওমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সোমবার রাত ন’টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত বিশ্বে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫,০১৭,০৬১। মৃত্যু হয়েছে মোট ১,৩৭,৩৩৪ জনের। সেরে উঠেছেন ৩৮,২৭৪,০৭০ জন। মোট আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে আপাতত দ্বিতীয় স্থানে আছে ভারত। সবার প্রথমে আছে আমেরিকা।

তারইমধ্যে তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের প্রাথমিক তথ্য থেকে মর্ডানা দাবি করেছে, ‘ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট’ মর্ডানার সম্ভাব্য করোনা টিকা ৯৪.৫ শতাংশ কার্যকরী হয়েছে। মার্কিন সংস্থার সিইও স্টিফেন ব্যানসেল বলেন, ‘এই তৃতীয় পর্যাযের গবেষণার ইতিবাচক মূল্যায়ন প্রথমবার তার বৈধতা দিয়েছে যে আমাদের টিকা যে কোভিড-১৯ রোগকে রুখতে পারবে।’ তাঁর থেকেও বেশি আত্মবিশ্বাসী শোনায় মর্ডানার প্রেসিডেন্ট স্টিফেন হগেকে। সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমরা একটা টিকা পেতে চলেছি। যা কোভিড-১৯-কে রুখতে পারে।’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin