মহানগর আ.লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের বিবৃতি: ‘আইভীর বক্তব্য অরাজনৈতিক-অশালিন’

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জের দুই জন সংসদ সদস্য সম্পর্কে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সেলিনা হায়াৎ আইভীর করা বিরূপ মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন।

১৪ ফেব্রুয়ারী রাতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এড. বিদ্যুত কুমার সাহা স্বাক্ষরিত প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ওই প্রতিবাদ জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৩ ফেব্রæয়ারী ২০২১, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর প্রদত্ত বক্তব্য পর দিন (১৪ ফেব্রুয়ারী) বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত হলে আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়। মেয়র আইভী একজন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হয়ে এ ধরণের অরাজনৈতিক বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে নিজ দলের নেতা ও সংসদ সদস্য নিয়ে যে ধরণের বিরূপ অশালিন মন্তব্য করেছেন, তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করি। আমরা অবিলম্বে মেয়র আইভীর এমন বক্তব্যর জন্য ক্ষমা চাওয়ার জন্য আহবান করছি।

আমরা সেলিনা হায়াৎ আইভীকে পরিস্কার ভাবে জানিয়ে দিতে চাই- এমপি শামীম ওসমান তো অনেক দুরের কথা; আপনি পারলে আগে আমাদের মোকাবেলা করুন। আপনার তথাকথিত সত্যের বুলি জনতার সামনে প্রকাশ হচ্ছে। আপনার অরাজনৈতিক আচারণ সংযত করুন। নইলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, বিশ্ব মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মীদের রোষানল থেকে রক্ষা পাবেন না। আপনার এমন কর্মকান্ড দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করছে, যা আমরা মেনে নিবো না।

মেয়র আইভীর বক্তব্য থেকে মনে হচ্ছে, ওনার নানা অপকর্মের তথ্য সমৃদ্ধ খবর জনসম্মুখে প্রকাশ হওয়াতে উনি উম্মাদ হয়ে গেছেন। আমরা মনে করি, ওনার দ্রুত চিকিৎসার প্রয়োজন। বিশাল অট্টালিকা থাকার পরও যদি চিকিৎসা নিতে অর্থ কষ্ট হয়, আমরা তার চিকিৎসার ব্যায় বহন করতে রাজি আছি।

আপনি (মেয়র আইভী) নারায়ণগঞ্জের রাজধানী দেওভোগ উল্লেখ করে, অন্যান্য এলাকা অসম্মান করে দেওভোগবাসীর সাথে বিভিন্ন এলাকার মানুষের মাঝে বিভাজন তৈরী করে ফায়দা লুটতে চান। দেওভোগবাসীকে মূলা ঝুলিয়ে তাদের ঐবক্যবদ্ধের নাটক সাজিয়ে ভোটের রাজনীতির দূরভিসন্ধি আপনার সফল হবে না।

আমরা আশা করি আপনার দখলদারিত্বের পক্ষে দেওভোগবাসী অন্যায়কে সাপোর্ট দিবে না। আপনি নারায়ণগঞ্জের ৫ আসনের সংসদ সদস্যকে নিয়েও কটাক্ষ্য করেছেন। আপনি ভুলে গেছেন, সেলিম ওসমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত হয়েই নির্বাচীত হয়েছেন। তাকে করে পরোক্ষভাবে আপনি আমাদের মাতৃত্ল্যু জননেত্রীকে অসম্মান দেখানোর দৃষ্টাতা সাহস পান কি করে। আমরা শেষবারের মতো আপনাকে সতর্ক করে দিতে চাই, আপনার কৃতকর্মের জন্য স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি জনতার, আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের কাছে ক্ষমা চান। নইলে আপনার অপকর্মের দায়ভার দল বহন করবে না।

যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন শীল, সহ সভাপতি এড. হান্নান আহমেদ দুলাল, সহ সভাপতি রবিউল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি মজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া। বন্দর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এমএ রশিদ, সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান।ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এম সাইফুল্লা বাদল, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী। নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবলীগ সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনু। মহানগর স্বেচ্ছা সেবক লীগ সভাপতি জুয়েল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক দুলাল প্রধান। মহানগর ছাত্র লীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ বিন্দু। মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইশরাত জাহান স্মৃতি, সাধারণ সম্পাদক রেহানা পারভীন। মহানগর যুব মহিলা লীগের আহবায়ক এড. সুইটি ইয়াসমি।

সূত্রঃ লাইভ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin