ভ্যানচালককে বলৎকারের অভিযোগে পুলিশের এসআই প্রত্যাহার

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এক ভ্যানচালককে বাসায় ডেকে এনে বলাৎকারের অভিযোগে রংপুরের পীরগাছা থানার এসআই স্বপন কুমার রায়কে থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। অসুস্থ্য ওই ভানচালককে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এসআই স্বপন কুমার রায়কে প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেষ চন্দ্র জানান, পুরো ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। এসআই স্বপন রায়কে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে। এছাড়াও তার ভাড়া বাসা থেকে ভূপতি রায় নামের আরও একজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এসআই স্বপন রায়ের বাড়ি নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায়। ২০ দিন আগে তার সন্তান সম্ভাবা স্ত্রী ডেলিভারির জন্য গ্রামের বাড়িতে যান। এই সুযোগে পীরগাছার কলেজ রোডে স্বর্ণ ব্যবসায়ী রিপন রায়ের ভাড়া বাড়িতে স্বপন রায় বিভিন্ন বয়সী পুরুষকে পুলিশী হুমকি দিয়ে বাড়িতে এনে তাদের বলাৎকার করতেন।

জানা গেছে, বুধবার (১৬ মার্চ) রাতে উপজেলার শুখানপুকুর এলাকার একজন ভ্যান চালককে (৫০) হুমকি দিয়ে ওই বাড়িতে নিয়ে এসআই স্বপন রায় তাকে উপর্যপুরি বলৎকার করে। এক পর্যায়ে ভূক্তভোগীর প্রচুর রক্তপাত হলে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) রাতে ভূক্তভোগীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয়। শুরুর দিকে বিষয়টি থামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করা হলেও তা ঢোপে টেকেনি।

এদিকে, এ ঘটনার পর শুক্রবার (১৮ মার্চ) বেলা ১১ টায় এসআই স্বপন রায়ের ভাড়া বাসায় অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান বাসার তালা ভেঙ্গে ভূপতি চন্দ্র রায় (৪৮) নামের আরও একজনকে উদ্ধার থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় পুরো উপজেলায় তোলপাড় চলছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভূক্তভোগীর স্ত্রী জানান, আমার সহজসরল স্বামীকে ভাড়ার কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে তার সর্বনাশ করেছে পুলিশ স্বপন চন্দ্র। আমি এর উপযুক্ত বিচার চাই।

ভূক্তভোগীর ছেলে জানান, পুলিশ আমার বয়োবৃদ্ধ বাবার ওপর যেভাবে পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে তা কোন সভ্য সমাজে হতে পারে না। সে পুলিশ বলে যেন কোনভাবেই পার না পায়। তাকে গ্রেফতার করে ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি আমি।

সূত্রঃ যমুনা টিভি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin