বিসিকের গার্মেন্টস কর্মীদের আতংকের নাম জলাবদ্ধতা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

প্রতিদিন প্রায় দুইলাখ মানুষের যাতায়াত মাসদাইর বিসিক সংযোগ সড়ক দিয়ে। বছরে দুই মাস বর্ষা থাকলেও বিসিকের বর্ষা যেন আরো দীর্ঘ।বছরের প্রায় ৮-৯ মাস জলমগ্ন হয়ে থাকে বিসিক।

শহরের ড্রেনের নোংরা পানি দিয়ে ডুবে থাকে এই সড়কটি। প্রতিদিনই বাধ্য হয়ে এই নোংরা পানি মাড়িয়ে কর্মস্থলে যেতে হয় গার্মেন্টস শ্রমিকদের। দ্বারে দ্বারে ঘুরেও এই জলাবদ্ধতার সমাধান পায়নি শ্রমিকরা।

ছোটবড় প্রায় দুইশতাধিক গার্মেন্টস রয়েছে এই বিসিকে। মালিকপক্ষের একটু উদ্যোগ পালটে দিতে পার লতো শ্রমিকদের এই ভোগান্তির চিত্র। কিন্তু তদন্তে দেখা যায় পানির প্রবাহ বন্ধ করে খালের যায়গা দখল করেছে প্রভাবশালী দুই কারখানা। তাদের প্রভাবের কাছে স্বয়ং জনপ্রতিনিধিরাও যেন অসহায়।

তবে আশার কথা হলো খাল উদ্বার এবং খাল পরিষ্কারের কাজ চলছে। স্বয়ং সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান তদারকি করছেন খাল সংস্কারের। আশা করা যায় খুব শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান হবে। জলাবদ্ধতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে বিসিকের খেটে খাওয়া মানুষগুলো। অন্তত নিরাপদে কর্মস্থলে যেতে পারবে শ্রমিকেরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin