বিয়ের প্রলোভনে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ফতুল্লার কুতুবপুর ইউনিয়নের দেলপাড়া এলাকায় এক গার্মেন্টকর্মীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে বখাটে শিমুল উরফে সোহেল (৩০)। এবং বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীর কাছ থেকে লাখ টাকার উপরে হাতিয়ে নিয়েছে বখাটে শিমুল।

অভিযুক্ত শিমুল সোহেল দেলপাড়া এলাকার অ্যাডভোকেট মাসুদ চৌধুরী বাড়ির ভাড়াটিয়া। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বিকালে ভুক্তভোগী তরুণী ফতুল্লা থানায় হাজির হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেন, গার্মেন্টস এ যাওয়া-আসার সময় পথিমধ্যে অভিযুক্ত সোহেলের সহিত প্রায় সময় দেখা-সাক্ষাত ও কথা হতো। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সু-সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং ১ বৎসর ধরে প্রেমের সম্পর্ক তৈরী হয়।

এ সময় সোহেল ব্যবসা মন্দার কথা বলে ভুক্তভোগীর নিকট থেকে এক লাখ ত্রিশ হাজার টাকা নেয় এবং বিবাহের প্রলোভনে বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। বিয়ের কথা বললে অভিযুক্ত সোহেল আজ কাল করিয়া ঘুরাতে থাকে এবং বিভিন্ন অযুহাত দেখাতে থাকে।

সর্বশেষ চলতি মাসের ২ পূর্বের ন্যায় আমাকে বিবাহের প্রলোভনে ফের শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। এরপর বিয়ের কথা বললে বিয়ে করবে না বলে জানায়। এবং তাকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে। একপর্যায়ে বিষয়টি যদি কাউকে জানায় তাহালে তাকে মারধর ও হত্যা করা হুমকি দেয়।

অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা থানার উপ পরিদর্শক দিপংকর এর কাছে অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি বিষয়টি মৌখিকভাবে শুনেছি মেয়েটির সাথে ছেলেটির প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। অভিযোগের কাগজটি এখনো আমার হাতে আসেনি তাই এখন বিস্তারিত কিছু বলতে পারছি না।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin