বিতর্কিত ৩ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ডিসি-এসপি বরাবর স্মারকলিপি প্রদান

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বেফাঁস বক্তব্য ও দলীয় প্রতিক নিয়ে কুটুক্তি করায় নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ৩ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ ও পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ।

আজ বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা এ স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, যে সমস্ত লোক বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করে আমরা তা সহ্য করবো না। তাই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে এ স্মারকলিপি প্রদান করলাম। আমাদের দাবি তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি প্রদান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপু, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু, আব্দুল কাদির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ, মহানগর কৃষকলীগের যুগ্ম আহবায়ক শফিকুল ইসলাম লিটন প্রমুখ।

স্মারকলিপি জমা দেওয়া শেষে এসপি জায়েদুল আলম বলেন। বঙ্গবন্ধু নিয়ে কটুক্তি বিষয় কোনো ছাড় নাই। যারা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি করেছে তাদো বিরুদ্ধে কঠোর মামলা করার জন্য পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জেলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের আহ্বান করেন।

জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ স্বারকলিপিটি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠাবেন বলে জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের বলেন।

উল্লেখ্য, সোনারগাঁও উপজেলার বারদী ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার প্রতিক নিয়ে বিজয়ী লায়ন মাহবুবুর রহমান বাবুল বারদীর একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান ওয়াজ মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে বেফাঁস বক্তব্য দিয়েছে।

এছাড়াও বন্দর কলাগাছিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন এক অনুষ্ঠানে বলেছেন আমি শেখ মুজিবুর রহমানকে চিনি না শেখ হাসিনাকে চিনি না। অপরদিকে আলীরটেক ইউনিয়নের নৌকার প্রতিক নিয়ে বিজয়ী চেয়ারম্যান জাকির হোসেন এক অনুষ্ঠানে বলেছেন আমি নৌকার প্রতিক না নিলে তার চেয়েও বেশি ভোটে নির্বাচিত হতাম।

এ তিন চেয়ারম্যানের বক্তব্যের কারনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের দাবি তাদের এ বেফাঁস বক্তব্যের জন্য এই তিন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রশাসন ব্যবস্থা নিবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin