বিএনপির নেতৃত্বে তৈমূর মামুন

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত হওয়ার প্রায় ইতোমধ্যে ৯ মাস অতিবাহিত হতে চলছে। নতুন কমিটি নিয়ে নানাজনের মাঝে নানা আলাপ আলোচনা চলমান থাকলেও এখন পর্যন্ত নতুন কমিটির দেখা মিলছে না। সেই সাথে করোনা সংক্রমণের কারণে আটকে ছিল বিএনপির সকল সাংগঠনিক কার্যক্রম। তবে গত ১৫ সেপ্টেম্বরের পর থেকেই বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রমের স্থগিতাদেশ উঠে গেছে।

এরপর থেকে আবারও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি নিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে। নানাজনে নানা কথা ভেসে বেড়াচ্ছে। সবশেষ অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার আর অধ্যাপক মামুন মাহমুদের নেতৃত্বেই নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি আসার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এই দুই নেতার নেতৃত্বেই গঠিত হবে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির নতুন আহবায়ক কমিটির। বিএনপি শীর্ষ পর্যায়ে এমন আলাপ আলোচনায় সরগরম রয়েছে। হয়তো আগামী কিছুদিনের মধ্যেই সেই কমিটির ঘোষণা হতে পারে।

দলীয় সূত্র বলছে, ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী জেলা বিএনপির ২৬ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়। জেলা বিএনপির সাবেক কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী মনিরুজ্জামানকে সভাপতি ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সাধারণ করে জেলা বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। তবে ওই কমিটি নারায়ণগঞ্জ তেমন একটা প্রভাব ফেলতে পারেনি।

এরপর ২০১৯ সালের ২৩ মার্চ দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান এবং সেক্রেটারী অধ্যাপক মামুন মাহমুদ সহ ২০৫ জনের পূর্ণাঙ্গ কমিটির ঘোষণা দিয়েছিলেন। আর এই পূর্ণাঙ্গ কমিটিও দলীয় আন্দোলন সংগ্রামে জোড়ালো কোনো ভূমিকা রাখতে পারেনি। যার ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপিকে চাঙ্গা করার লক্ষ্যে নতুন কমিটির উদ্যোগ নেয় কেন্দ্রীয় বিএনপি। সেই সূত্র ধরে চলমান কমিটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

গত ২১ ফেব্রুয়ারী দলের সহ-দফতর সম্পাদক মুহাম্মদ মুনির হোসেন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার কথা বলা হয়। সেই সাথে ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরবর্তী নতুন কমিটি গঠন না হওয়া পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ জেলার অধীন সব উপজেলা ও পৌর বিএনপির কার্যক্রম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহ-সাংগঠনিক

সম্পাদকদের পরামর্শে পরিচালিত হবে।

আর নতুন কমিটি নিয়ে আলাপ আলোচনার মধ্যেই দেখা দেয় প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। যার ফলে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি সহ বিএনপির সকল কমিটি গঠন প্রক্রিয়া সহ সকল কার্যক্রমে স্থগিতাদেশ দেয়া হয়। সেই সাথে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে বিএনপির স্থগিতাদেশও বাড়তে থাকে। সবশেষ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম কিংবা সাংগঠনিক গঠন ও পুনর্গঠন প্রক্রিয়া আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়।

এদিকে এই স্থগিতাদেশ উঠে যাওয়ার সাথে সাথেই আবারও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি নিয়ে আলাপ আলোচনা শুরু হয়। আর এই আলাপ আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ। তাদের নেতৃত্বে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি গঠন করা হবে। তারা কিছুদিনের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে জেলা বিএনপির গতিশীল কমিটির উপহার দিবেন। কিন্তু এই আলাপ আলোচনা চলমান থাকার দেশের কয়েকটি আসনের উপনির্বাচন শুরু হয়। ফলে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা নির্বাচনের দিকেই বেশি মনযোগ দেন। আগামী ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারকে নির্বাচন কার্যক্রম পরিচালনা ও সমন্বয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়। আর এই নির্বাচন শেষেই যে কোনো একদিন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটির ঘোষণা হয়ে যাবে।

তবে এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, কমিটির বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। কবে হবে এ বিষয়ে তার কোনো ধারণা নেই।

সূত্রঃ নিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin