বলাৎকারের ঘটনায় কঠোর শাস্তি হোক : আব্দুল আউয়াল

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলা হেফাজতের আমীর ও ডিআইটি রেলওয়ে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেছেন, সমকামিতা আমাদের দেশে সমাজের ভিতরে পরোক্ষভাবে ঢুকে গেছে। এদেরকে বলৎকার বলা হচ্ছে। আমি বলবো এই ঘটনায় জড়িত কোনো আলেম হোক কোনো মাদরাসার শিক্ষক হোক তার পুরুসাঙ্গ কেটে মানুষের সামনে বেইজ্জত করে বিদায় দেয়া হোক। অন্যায়কে অন্যায় বলতে হবে।

৯ অক্টোবর শুক্রবার জুমআর নামাজের খুতবায় তিনি এসব কথা বলেন।

আব্দুল আউয়াল বলেন, অন্যায় করলে অপরের বেলায় যে বিচার আপনজনের বেলায়ই সেই বিচার করতে হবে। কিন্ত বাস্তবে অন্যায় অপরে করলে বিচার কঠোর হয়। কিন্তু আমার দলের লোক আমার ছেলেরা সেখানে বিচার হালকা হয়। এটা আমানতের খেয়ানত হবে।

তিনি আরও বলেন, বলাৎকার নাই যে এমন না, ভিতরে ভিতরে বলাৎকার আছে। আমার মসজিদের মুসুল্লিদের মধ্যে নাই যে সেটা আমি কিভাবে বলবো। ঠিক যিনার বিচার যেরকম হবে বলাৎকারের বিচারও ঠিক সেরকম হবে। এই অপরাধ প্রবণতার কারণে এমন শাস্তি দেয়া হোক যাতে করে অন্যরা সংশোধ হয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, আমার মনে হয় বিবাহের আইন সংশোধন করার দরকার। দেশে যিনা ব্যভিচার বেড়ে গেছে সেখানে আপনি আইন করে বিবাহ আটকে দিবেন বিবাহ করতে দিবেন না সেটা হয় না। সারাদেশে মিনি পতিতালয় চলছে। বর্তমানে ধর্ষণ বৃদ্ধির কারণে এটার বৈধতা চাইছে। যারা পতিতাবৃত্তি চাচ্ছে তাদের মা বোন নেই। তারা পরের মা বোন নিয়ে পতিতাবৃত্তির লাইসেন্স চাইছে তাহলে তাদের মা বোনকে রাস্তায় নামিয়ে দেয়া হোক। এটা কি লজ্জা করে না।

জেলা হেফাজতের আমীর বলেন, অশ্লীল ছবিগুলো আমাদের সামনে এভাবে ওপেন হয়ে গেছে যার কারণে ছেলেরা সারারাত শুয়ে দেখতে দেখতে ঘুমিয়ে যায় আর মোবাইল একদিকে পড়ে থাকে। ঘুম থেকে উঠে দেখে তার কাপড় নাপাক হয়ে গেছে। ইউরোপের দেশুগুরো মানবীয় গুণাবলি হারিয়ে ফেলেছে বলে তারা ফ্রি সেক্স করে। তারা চাচ্ছে যেহেতু বাংলাদেশ মুসলিম রাষ্ট তাই রাষ্ট্রের যুবকগুলোকে পথভ্রষ্ট করছে। তারা টেলিভিশন হাতে হাতে দিয়েছে। আমরা দেখতাছি এটা সুন্দরা। কিন্তু এটাকে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ ভালভাবে ব্যবহার করে না। এটার কারণে কত সময় নষ্ট হয়। তরুণ তরুণীরা ব্যালেন্স মানছে না।

সূত্রঃনিউজ নারায়ণগঞ্জ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin