ফতুল্লা হাজীগঞ্জে যুবকের লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ফতুল্লার হাজীগঞ্জ এলাকায় হৃদয় (২৫) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যুবকের মাথায় জখমের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নিহত হৃদয় হাজীগঞ্জ উচাবাড়ির এলাকার মো. খোকন মিয়ার ছেলে।

রবিবার (২০ জুন) বিকালে সদর উপজেলার পশ্চিম হাজিগঞ্জ প্রাইমারি স্কুল এলাকায় রক্তমাথা লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীরা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে মর্গে প্রেরণ করে। তথ্য‌টি নিশ্চিত করেছেন ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শামীম।

নিহতের পরিবার জানায়, শনিবার রাতে বাসা থেকে বের হয় হৃদয়। তারপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরদিন আশপাশের লোকজনের মাধ্যমে জানতে পারে হৃদয় খুন হয়েছে। পরিবারের দাবি পরিকল্পিত ভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শামীম লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, খবর পেয়ে সাথে সাথে ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে আসি। এসে দেখি একটি বিল্ডিংয়ের সিড়ি পাশে পরে আছে মৃত দেহ। নিহত যুবক ইলেক্টিশিয়ান ছিলো। হয়তো কাজ করতে গিয়ে দূর্ঘটনার শিকার হতে পারে। মাথায় জখমের চিহ্ন রয়েছে। বাকিটা ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর আাসল কারণ জানা যাবে।

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রকিবুজ্জামান লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, বিকাল আনুমানিক সোয়া ৩টায় খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। ইতিমধ্যে আমিও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। হাজীগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি বন্ধ থাকায়, মাদকাসক্তরা সেখানে আড্ডাখানা তৈরী করে। স্কুলের প্রধান গেট তালাবদ্ধ থাকলেও পাশের দেয়াল টপকে সহজেই স্কুল মাঠে প্রবেশ করা যায়। নিহত যুবক প্রায় সেখানে আড্ডা দিতো। পুলিশ নিহতের মাথায় রক্তাক্ত জখমের চিহ্ন পেয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্টের পেলে মৃত্যুর কারণ যানা যাবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin