ফতুল্লা পাইলট স্কুলের ছাত্রীর আত্মহত্যা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

পরীক্ষার ফিস না দিতে পারায় ক্ষোভে ফতুল্লা পাইলট স্কুলের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ করেছে ছাত্রীর পরিবার।

গতকাল সোমবার (১৪ মার্চ) দুপুরে ফতুল্লার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকায় মৃত করিম শিকদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিহত ওই তরণীর নাম লামিয়া (১৫)। সে ফতুল্লা পাইলট স্কুলের দশম শ্রেনীর ছাত্রী ও আব্দুল মতিন মিয়ার মেয়ে।

নিহত ছাত্রীর বাবা আব্দুল মতিন মিয়া জানান, মেয়ে লামিয়া কোচিং শেষ করে দুপুর ২ টায় বাসায় এসে পরীক্ষার ফিস দেওয়ার জন্য টাকা চায়। তখন আমি বলি ২/৩ পর দিবো। পরে পাশের রুমে চলে কিছুক্ষন পর তার কোন সারাশব্দ না পেয়ে পশের রুমে গিয়ে দেখি ফ্যানে সাথে ওরনা পেচিয়ে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে তাকে উদ্ধার করে ফতুল্লা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া আমার মেয়ের মানসিক সমস্যা ছিল।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ জানায়, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেছি এবং এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে ঘটনাটি কী আত্মহত্যা না হত্যাকাণ্ড এখনো বলা যাচ্ছে না। তদন্তের পর সত্য ঘটনা জানা যাবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin