ফতুল্লায় কিশোরের আত্মহত্যা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

গেমস থেকে ভিডিও আপলোড করে ফেসবুকের নিজ স্টোরিতে ‘ফাস্ট টাইম মেশিন চালাইলাম’ লিখে পুলিশের কাছে গ্রেফতার হওয়া কিশোর তানভীর (১৭) আত্মহত্যা করেছে।

আজ ২৩ নভেম্বর (মঙ্গলবার) বিকেলে কিশোর নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। নিহত তানভীর ফতুল্লা থানার দাপা কবরস্থান সড়কের কুদ্দুস মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

নিহত কিশোরের মা পারভীন জানায়, মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে স্থানীয় সন্ত্রাসী মিল্লাত বাহিনীর সদস্য কামরুল, জনু, সজীব, জামাই শাকিল, রাসেল, লিমন, মমিন সহ বেশ কয়েক সন্ত্রাসী তার ছেলেকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে চন্দ্রাবাড়ীর ভিতরে নিয়ে গিয়ে মারধর করে। একেপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা নিহত তানভীরকে ছেড়ে দেয়। পরে বাসায় ফিরে এলে সন্ত্রাসীরা পুনরায় তানভীর কে ফোন করে জানায় যে তাকে রাস্তায় পেলে আবারো মারধর করবে। এ ঘটনা তানভীর তার মাকে জাানিয়ে নিজ ঘরে প্রবেশ করে।

নিহত তানভীরের মায়ের ধারনা পুনরায় নির্যাতিত হতে হবে এই ভয়ে পরিবারের সদস্যদের অলক্ষ্যে তানভীর নিজ ঘরে প্রবেশ করে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ফাসঁ দিয়ে আত্মহত্যা করে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক শাহাদাত হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত উত্তেজিত জনতা মমিন নামক এক সন্ত্রাসীকে চন্দ্রাবাড়ী থেকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। পরে তিনি উত্তেজিত জনতার হাত থেকে মমিন কে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের মার্চ মাসের ২২ তারিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের স্টোরিতে বন্দুক দিয়ে গুলি চালানোর একটি ভিডিও শেয়ার করে নিহত তানভীর । ভিডিওটি মুহূর্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশের নজরে আসে ওই কিশোর। এ ঘটনায় (২৩ মার্চ) ফতুল্লা রেল স্টেশন এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিলো তানভীরকে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin