পাসপোর্ট ইস্যুতে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে যা বললেন মোমেন

শেয়ার করুণ

বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে ‘এক্সেপ্ট ইসরায়েল’ লেখা বাদ প্রসঙ্গে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ হিসেবে সিদ্ধান্ত নেবে।

মঙ্গলবার (২৫ মে) দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।
এসময় চীনের টিকা প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চীনের সঙ্গে সিনোফার্মের টিকা কেনা চূড়ান্ত হয়েছে। আগামী জুন থেকে প্রতি মাসে ৫০ লাখ করে তিনমাসে মোট দেড়

এর আগে সোমবার (২৪ মে) সন্ধ্যায় বাংলাদেশে নিযুক্ত ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূত ইউসেফ এস ওয়াই রামাদান বাংলাদেশি পাসপোর্ট থেকে ‘এক্সেপ্ট ইসরায়েল’ লেখা বাদ দেয়ায় খুশি নন জানিয়ে এ সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানান।

গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘বাংলাদেশি পাসপোর্টের ইসরায়েল লেখা বাদ দেয়া নিয়ে আমি খুশি নই। তবে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের পর কূটনৈতিক দিক দিয়ে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু, এই সময়ে এই সিদ্ধান্ত ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য বেদনাদায়ক।’
তিনি বাংলাদেশের জনগণের ফিলিস্তিন ইস্যুতে সহমর্মিতার প্রশংসা করে বলেন, ‘ফিলিস্তিনের জনগণের প্রতি এই দেশের জনগণের অবস্থান মুগ্ধ করার মতো।’
ফিলিস্তিনের জনগণকে যারা আর্থিক সহায়তা পাঠাচ্ছেন তাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘এই সহায়তা যুদ্ধাহত মানুষের চিকিৎসার সরঞ্জাম কেনার কাজে ব্যবহার করা হবে।

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রদূত আরও জানান, ইসরায়েল ফিলিস্তিনের জনগণকে বিভক্ত করতে চায়।
প্রসঙ্গত, স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের ইস্যুকৃত পাসপোর্টের প্রথম পৃষ্ঠায় লেখা ছিল ‘দিস পাসপোর্ট ইজ ভ্যালিড ফর অল কান্ট্রিজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড এক্সসেপ্ট ইসরাইল’ (বিশ্বের যেকোনো দেশের জন্য এই পাসপোর্ট কার্যকর থাকবে, শুধু ইসরাইল ছাড়া)। অর্থাৎ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী কোনো ব্যক্তি শুধু ইসরাইল ব্যতিরেকে বিশ্বের যেকোনো দেশ ভ্রমণ করতে পারবেন।

সূত্র: সময় নিউজ

নিউজটি শেয়ার করুণ