পাগলায় মেয়েকে বাচাতে গিয়ে বখাটেদের হামলার শিকার বাবা-মা

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

জেলার ফতুল্লার পাগলায় বখাটেদের কবল থেকে কিশোরী মেয়ে (১৭)কে বাঁচাতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন ভুক্তভোগী মেয়ের বাবা-মা।

গতকাল বুধবার (২৬ জানুয়ারি) রাতে সাড়ে ১০টায় ফতুল্লা থানার পাগলা নন্দলালপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে অভিযুক্ত তিন জনকে গ্রেফতার করে।গ্রেফতারকৃতরা হলো ফতুল্লার পাগলা নন্দলালপুর এলাকার কামালের পুত্র মোঃ রাব্বি (১৭),হারুনের পুত্র কাউছার (১৪), নয়ামাটি এলাকার হানিফের পুত্র মোঃ শামিম (১৬)।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদীর মেয়ে গত ১৫ দিন পূ্র্বে স্থানীয় প্রাইম টেক্সটাইল মিলে হেলপার হিসেবে যোগদান করে। যাতায়াতের পথে প্রায় সময় বখাটেরা বাদীর কিশোরী মেয়েকে উত্যক্ত করতো। এরই ধারাবাহিকতায় গত বুধবার রাত সাড়ে দশটার দিকে বাদীর কিশোরী মেয়ে নিজ কর্মস্থল থেকে পায়ে হেটে বাসায় ফেরার পথে বখাটে রাব্বি,কাউছার, শামিম ও সজল কিশোরী মেয়েটির পথরোধ করে অশালীন প্রস্তাব দেয়। এতে করে তার কিশোরী মেয়ে প্রতিবাদ করলে বখাটেরা বাদীর মেয়ের ওড়না ও হাত ধরে টানা হেচড়া করতে থাকে। এতে তার কিশোরী মেয়ে ডাক-চিৎকার করলে বাদী ও তার স্ত্রী বখাটেদের কবল থেকে মেয়েকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে বখাটেরা তাদেরকে মারধর করে। এ সময় আত্নরক্ষার্থে তারা ডাক-চিৎকার করলে স্থানীয় পথচারীরা এগিয়ে এলে বখাটেরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক বোরহান দর্জি জানায়, ঘটনার পরপর নন্দলালপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত অভিযুক্ত রাব্বি,কাউছার ও শামীম কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তবে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় মামলার অপর আসামী সজল। তাকে ও গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin