পরিবর্তনের শ্লোগান নিয়ে ১৪ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী মাসুম আহমেদ

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ঘনিয়ে আসছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। চলতি বছরের ডিসেম্বর থেকে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারীর ভিতর হতে পারে এই নির্বাচন। নির্বাচন নিয়ে মেয়র প্রার্থীরা মাঠে না নামলেও কৌশলে কাজ শুরু করেছেন বিভিন্ন ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা। নগরীর গোয়ালপাড়া, নয়ামাটি এলাকা নিয়ে গঠিত ১৪ নং ওয়ার্ডে পরিবর্তনের শ্লোগান নিয়ে নির্বাচন করতে চান এমনই এক প্রার্থী।

মাসুম আহমেদ। ছোটবেলা থেকেই মানুষের সেবা করার প্রবল ইচ্ছা। স্কুলে পড়া অবস্থায় বন্ধুদের সাথে নিয়ে ছোট ছোট সামাজিক কর্মকাণ্ডে হাতেখড়ি। নারায়ণগঞ্জ বার একাডেমি থেকে করেছেন এসএসসি। এইচএসসি এবং স্নাতক শেষ করেছেন জেলার সেরা বিদ্যাপীঠ সরকারী তোলরাম কলেজ থেকে। মানুষ ও সমাজের সেবা করার ব্রত নিয়ে কলেজ জীবনেই নিজেকে যুক্ত করেছেন ছাত্র রাজনীতিতে।

আদর্শ হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুকে। ছাত্র জীবনে শামীম ওসমান এবং এডভোকেট খোকন সাহার নেতৃত্বে রাজপথ কাপিয়েছেন। রাজনীতির পাশাপাশি নিজেকে যুক্ত রেখেছেন বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে। নিজের পৈতৃক নিবাস গোয়ালপাড়া সমাজ কল্যান সংগঠনের বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে সমাজ উন্নয়নের কাজে নিজেকে যুক্ত রেখেছেন। পেশাগত জীবনে একজন ব্যবসায়ী মাসুম আহমেদ একজন সংস্কৃতিমনা, সদালাপী ব্যক্তি বলেই পরিচিত নিজের এলাকায়।

পরিবর্তনের শ্লোগান নিয়ে তিনি লড়তে চান আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদের জন্য। ইতিমধ্যেই তার পরিবর্তনের শ্লোগান সাড়া ফেলেছে এলাকার তরুন প্রজন্মের কাছে। নারায়ণগঞ্জ বুলেটিনের সাথে আলাপকালে সম্ভাব্য এই কাউন্সিলর প্রার্থী জানান, বিগত আমলগুলোতে কেবল উন্নয়নের ফুলঝুরি ছড়িয়েছেন কাউন্সিলররা।

উন্নয়নের নামে দৃশ্যমান কিছু উন্নয়ন হলেও ওয়ার্ডবাসী তাদের কাঙ্ক্ষিত নাগরিক সুবিধা পায়নি। জলাবদ্ধতা, মশা নিধন করার ক্ষেত্রে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে তারা। মাদক, কিশোর গ্যাং সহ অন্যান্য সমস্যা সমাধানে কাউন্সিলরদের কোন ভুমিকাতো দেখা যায়নি বরঞ্চ তাদের বিরুদ্ধে এগুলোকে প্রশ্রয় দেয়ার অভিযোগও রয়েছে।

এলাকার তরুন, শিক্ষিত এবং মেধাবীদের নিয়ে একটি আধুনিক ওয়ার্ড গড়ার স্বপ্ন এই কাউন্সিলর প্রার্থীর। মাদক, ইভটিজিং এবং চাঁদাবাজমুক্ত একটি মানবিক ওয়ার্ড গড়তে চান এই কাউন্সিলর প্রার্থী ।

নবীন-প্রবীনের মাঝে সেতুবন্ধনের জন্য তিনি গড়তে চান ক্লাব। বিপথে যাওয়া তরুনদের জন্য করতে চান খেলার মাঠ। বেকারদের কর্মসংস্থানের জন্য তিনি খুলতে চান চাকরির হাট যেখানে এলাকার বড় বড় শিল্পপতিরা নিজেদের এলাকার যোগ্য প্রার্থীদের চাকুরীর ব্যবস্থা করবে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের এই সৈনিক লড়তে চান আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়েই। সমর্থন না পেলে এলাকার প্রবীন ও নেতা-কর্মীদের সাথে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নিবেন বলে জানান এই সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin