পদ পাওয়ার জন্য কোথাও যাই নাই:তৈমূর

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

 কোনো দিন কোনো পদ পাওয়ার জন্য আমি কোথাও যাই নাই। আমি এ বিষয়ে কোনো খোঁজ খবর রাখি না। আমাকে যখন কনভেনার করা হয় মহানগরের আমি তখন জয়েনও করি নাই। আনুষ্ঠানিক যোগদান করার কথা আমি সেটাও করি নাই। আমাকে ডেকে নিয়ে আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সেই সময় অনেকে দায়িত্ব ছেড়ে চলে গেছে। বিএনপি যখন ক্ষমতায় থাকে তখন অনেক মানুষই দেখা যায়। বিএনপি যখন ক্ষমতায় থাকে না তখন কিন্তু অনেকেরই পদচারণা থাকে না।’

২ সেপ্টেম্বর বুধবার নারায়ণগঞ্জের সমসাময়িক বিষয় নিয়ে নিউজ নারায়ণগঞ্জের ফেসবুক লাইভ টক শো ‘নারায়ণগঞ্জ কথন’ বিষয় ‘প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও নারায়ণগঞ্জ বিএনপির রাজনীতি’ অনুষ্ঠানে ‘আসছে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটিতে আপনাকে আহবায়ক করা হবে এটা কতটুকু সত্য?’ এমন প্রশ্নে এসব কথা বছেলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন আরিফ হোসাইন কনক।

‘একসময় জেলা বিএনপির সেক্রেটারি ছিলেন, পরে সভাপতি। সেখান থেকে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা। একজন জাতীয় নেতা হয়েও জেলা বিএনপির আহ্বায়কের পদ নিয়ে থাকাটা কতটুকু যৌক্তিক?’ এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘দলের ক্রান্তিকাল চলছে। দলটা ১২ বছর ধরে ক্ষমতায় নাই। দলের প্রায় ৭০ শতাংশ নেতাকর্মী বিভিন্ন মামলা মোকদ্দমায় জর্জরিত। দলের চেয়ারপারসন ঘরে অবরুদ্ধ। তিনি জেলখানা থাকা এবং জেলখানা থাকার মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে তিনি বর্তমানে নিজের ঘরে থাকছেন, নিজের খাবার খাচ্ছেন। আর জেলখানায় হলে সরকারি ঘরে থাকতেন সরকারি খাবার খেতেন। এছাড়া তাঁর কোনো মুভমেন্ট নাই। এই সরকারের স্বৈরাচারী ভূমিকার কারণে রাজনীতি করতে পারছেন না। ফলে চেয়ারপারসনের দূরাবস্থা। পাশাপাশি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন ১২ হাজার মাইল দূরে। তিনিও দেশে আসতে পারছেন না।

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনীতিতে তিনটা জিনিস আমি খুঁজে পাই। সুবিধাবাদী, সুবিধাভোগী এবং সুযোগ সন্ধানি। এই তিন শ্রেনির যারা তাঁরা যখন পরিষ্কার আকাশ থাকবে তখন ঘর থেকে বের হবে। যখন আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকবে তখন ঘর থেকে বের হবে না। এর মধ্যেই রাজনীতি করতে হচ্ছে। আমি মনে করি দলের একজন কর্মী হিসেবে দলের দুঃসময়ে যে দায়িত্ব দিবে দলকে পুনর্গঠনের জন্য আমি করব। তবে স্থায়ীভাবে সভাপতিত্ব করতে চাই না। কনভেনার হিসেবে নিপীড়িত নির্যাতিত রাজপথের নেতাকর্মী তাঁদের সমন্বয়ে যেন কমিটি হয় সেটা আমি করতে চাই।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin