পদ্মার তীরে বরযাত্রীদের নৌকায় বজ্রপাত: ১৭ জন নিহত

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলীয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ ইউনিয়নে পদ্মা নদীর পাড়ের একটি ঘাটের ঘরে বজ্রপাতে সতের জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাকিব-আল-রাব্বি।
ওই ব্যক্তিরা বরযাত্রী দলের সদস্য ছিলেন, তবে দুর্গম এলাকা হওয়াতে দুপুর পর্যন্ত ওই বরযাত্রী দলে মোট কতজন সদস্য ছিলো এবং যারা মারা গেছে তাদের মধ্যে পুরুষ, নারী বা শিশু কতজন সেটি নিশ্চিত করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাকিব-আল-রাব্বি বিবিসি বাংলাকে বলেছেন বরযাত্রী দলটি উপজেলা সদরের সুন্দরপুর ইউনিয়নের অধিবাসী।

“তারা বরযাত্রী হিসেবে সুন্দরপুর ইউনিয়ন থেকে পদ্মা নদী পার হয়ে পাকা ইউনিয়নে যাচ্ছিলো। দক্ষিণ চরপাতা এলাকায় পদ্মার তেলিখারি ঘাটে আসলে প্রচণ্ড বৃষ্টি শুরু হলে তারা ঘাটেই একটি ঘরে আশ্রয় নেয়। ওই ঘরেই বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। মৃতদেহগুলো আনা হচ্ছে এবং আমরা সেখানে যাচ্ছি,” মিস্টার রাব্বী বলছিলেন।
উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলামও এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান যে তিনিও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে ঘটনাস্থলের পথে রয়েছেন।

“এখন পর্যন্ত এটুকুই আমরা নিশ্চিত হতে পেরেছি যে সতের জন স্পট ডেড। বরযাত্রী দলটি নদী পার হওয়ার জন্য ঘাটে অপেক্ষা করছিলো। বৃষ্টির কারণে তারা সেখানে একটি ছোট ঘরে আশ্রয় নিয়েছিলো,” বলছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর বজ্রপাতের পরিমাণ ও এতে হতাহতের ঘটনা বাড়ছে বলে জানিয়ে আসছে। বাংলাদেশের জাতীয় দুর্যোগের তালিকায় ২০১৬ সালের ১৭ই মে বজ্রপাত অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin