নৈশকোচে ঘুমন্ত শিশুকে যৌন হেনস্থা, গণপিটুনির পর থানায় নিপীড়ক

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বাবা মায়ের সঙ্গে ঢাকা যাওয়ার পথে নৈশ কোচে যৌন নিপীরনের শিকার হলো ১১ বছরের শিশু। বৃহস্পতিবার (১৬ অক্টোবর) ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায়। নিপীড়ক যুবক জাহিদ খানকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে জাহিদ খানের বিরুদ্ধে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ, মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটি তার বাবা-মায়ের সঙ্গে সোহাগ পরিবহন নামের একটি নৈশ কোচে করে ঢাকা যাচ্ছিল। যশোর থেকে ছেড়ে আসা ওই বাসটি রাত আড়াইটার দিকে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের জিরোপয়েন্ট এলাকায় পৌঁছে যানজটে আটকা পড়ে। সেখানে শিশুটির বাবা বাস থেকে নেমে পাশের এক দোকানে খাবার কিনতে যান। এদিকে বাসের ভেতরে মায়ের সঙ্গে থাকা শিশুটির ঘুম পায়। পরে সে তার মায়ের কথামতো পিছনে খালি সিটের উপরে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। এই সুযোগে একই বাসের অপর এক যাত্রী মো. জাহিদ খান (২২) তার নির্দিষ্ট আসন ছেড়ে প্রথমে ওই মেয়েটির পাশের সিটে গিয়ে বসে। পরে সে ঘুমন্ত ওই শিশুর শরীরের হাত দেয়। এতে হঠাৎ ঘুম ভেঙে গেলে শিশুটি চিৎকার করে। সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটির মাসহ বাসের ভেতরে থাকা যাত্রীরা গিয়ে জাহিদকে হাতেনাতে আটক করে বাস থেকে নামিয়ে গণপিটুনি দেয়। পরে তাকে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও দায়িত্বপ্রাপ্ত ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, যৌন নিপীড়নের শিকার ওই শিশুর বাবা বাদী হয়ে শুক্রবার মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় গ্রেপ্তার জাহিদকে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সূত্রঃসময় নিউজ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin