নেশার নাম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনপ্রিয়তা!

শেয়ার করুণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

পৃথিবীতে  নাম, খ্যাতি বা যশ কামাতে চায় না এমন লোক খুঁজে  পাওয়া খুব কষ্টকর, যারা Communication নিয়ে পড়াশোনা করেন তাদের একটি কথা পাঠ করানো হয় হর হামেশাই সেই কথাটি হলো “আপনি কি বলেন বা করেন এটা গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু আপনি  কিভাবে বলেন বা করেন সেটি আরোও গুরুত্বপূর্ণ”

এইতো আজ থেকে ছয় মাস আগেও কেউ ভাবেনি একটি ছোট ভাইরাস পুরো পৃথিবীকে এই ভাবে ধাক্কা দিবে।  এই লিখাটি লেখার সময় পর্যন্ত প্রায় ৬৫ লাখ মানুষ আক্রান্ত আর মৃত্যু হয়েছে  ৪ লাখের বেশি। এই মহামারি সময়ে অনেক মানুষ-মানুষের জন্য নানা ভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে, কেউ মন থেকে কেউ শুধু জনপ্রিয়তা নামক নেশা থেকে!       

বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পাওয়া একধরনের নেশার মতো হয়ে গিয়েছে এই প্রতিযোগিতা ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে এই প্রতিযোগিতার কিছু ভালো দিক থাকলেও খারাপের পাল্লাটাই বেশি ভারি। এর জন্য বলা হয় প্রযুক্তি বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হচ্ছে একটা গাড়ির মতো আর এর ব্যবহার যারা করেন তারা হচ্ছে ড্রাইভার আর একজন ড্রাইভার গাড়ি কে যেই দিকে নিয়ে যাবে গাড়িটা সেই দিকে যাবে। আপনি যদি প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি সুন্দর পৃথিবী গড়তে চান তাহলে সেটাই হবে আর আপনি এটা থেকে যদি শুধু নিজের লাভের চিন্তা করেন সেটাও পারবেন।  এখন সিদ্ধান্ত নিতে হবে আমাদের আমরা কি একটি সুন্দর পৃথিবী চাই না আমাদের ব্যক্তিগত উন্নয়ন চাই? 

এই মহামারী পরিস্থিতিতে  দেশের নানা জায়গা থেকে অনেক সমাজ সেবকরা তাদের সাধ্যের মধ্যে চেষ্টা করছে মানুষের জন্য কিছু করার। কিন্তু কিছু মানুষ মানুষের উপকার এর চেয়ে লোক দেখানো টা কেই বেশি প্রাধান্য  দিচ্ছে।  আমরা এমনও কিছু  ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখতে পেয়েছি যে, যেই ছবি গুলো দেখে বুঝা মুশকিল কে ত্রান দিচ্ছে আর কে ত্রান নিচ্ছে? অনেকে প্রশ্ন করতে পারে লোক দেখিয়ে যদি কিছু মানুষের উপকার হয় তাহলে সমস্যা কি?  আসলে সাময়িক ভাবে কোন সমস্যা না থাকলে ও এটা একটা খারাপ চর্চা যা মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পরবে। কেন খারাপ চর্চা বলছি কারণ, কারণ দান খয়রাত এর ও একটি সুন্দর প্রক্রিয়া আছে, এর সাথে মানুষের সম্মান আত্ম-মর্যাদা জড়িত।  শুধু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জনের লক্ষ্যে যেন আমরা শুধু এটি না করি। অনেক সময় অতি সাধারণ দান ও অসাধারণ হয়ে উঠে শুধু মাত্র দিবার প্রক্রিয়া সুন্দর হবার জন্য, এর জন্য আমি আমার লিখার শুরুতেই বলেছি, আপনি কি বলেন বা করেন তা গুরুত্বপূর্ণ কিন্তু তার চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ আপনি কিভাবে বলেন বা করেন। 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin